banglanewspaper

বান্দরবনের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু সীমান্তের শূন্যরেখায় মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) শতাধিক রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেছে।

মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৪টা থেকে ৫টা পর্যন্ত থেমে থেমে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সীমান্তের কয়েকটি পোস্ট থেকে তারা এই গুলি চালায়। এতে তুমব্রু সীমান্তের শূন্যরেখায় অবস্থানকারী রোহিঙ্গাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় অনেকে বাংলাদেশের ভূখন্ডেও চলে আসেন।

বিজিবির ৩৪ ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর ইকবাল জানান, তুমব্রু সীমান্তে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে ভোর ৪-৫ টা পর্যন্ত থেমে থেমে ১২০ রাউন্ড থেকে ১৩০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ হয়েছে। কি কারণে এ গুলিবর্ষণ করা হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।

সীমান্তের কাছাকাছি এক-দুই রাউন্ড গুলিবর্ষণ হলে তা নিয়ে বিজিবি-র পক্ষ থেকে কোন প্রতিবাদ লিপি পাঠানো হয় না। তবে শতাধিক রাউন্ডের ওপর গুলিবর্ষণ কি কারণে করা হয়েছে তা জানতে চেয়ে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপি’র কাছে প্রতিবাদ লিপি পাঠানো হচ্ছে বলে জানায় বিজিবি।

রাখাইনে ২০১৭ সালের আগস্টে রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনী জাতিগত নিধন চালায়। সে সময়ে প্রাণ বাঁচাতে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এদের মধ্যে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার রোহিঙ্গা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু সীমান্তের শূন্যরেখায় অবস্থান নেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 সীমান্ত বিজিপি গুলিবর্ষণ