banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর): গাজীপুরের শ্রীপুরে এক প্রতিবন্ধী অন্তসত্ত্বার ঘটনায় থানায় দেয়া অভিযোগের পর একজনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।
গ্রেফতারকৃত আফির উদ্দিন মাস্টার উপজেলার ধনুয়া গ্রামের হাজী শরাফত আলীর পুত্র।

১৫ ফেব্রুয়ারি ভিকটিমের বড় ভাই বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করলে ১৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার অভিযুক্তকে আটক করে পুলিশ।

শ্রীপুর থানার উপ-পরির্দশক (এসআই) হারুন উর রশিদ জানান, এ বিষয়ে লিখিত একটি অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন।

ইল্লেখ, থানায় দেওয়া অভিযোগ ও পাপিয়ার-(ছদ্দনাম) ভাবীর ভাষ্যমতে জানা যায়, পাপিয়া-(ছদ্দনাম) একই এলাকার আফির উদ্দিনের বাড়ীতে থেকে প্রায় ১বছর যাবৎ কাজ করতো। কিছু দিন যাবৎ তার শারীরিক পরিবর্তন দেখে সন্দেহ হলে গত ১৩ ফেব্রুয়ারী স্থানীয় একটি ডাক্তারের কাছে নিয়ে পরিক্ষা নিরিক্ষা করলে ডাক্তার জানায় সে ৬মাসের অন্তসত্ত্বা। পরে আমার বোন বাড়ীতে এসে আফির মাস্টার তার সাথে বিভিন্ন সময় শারীরিক সর্ম্পক করে বলে জানায়। এ কথা কাউকে বললে তাকে খুন করবে বলেও হুমকী দেওয়া হয়। পরবর্তীতে  গত ১৪ ফেব্রুয়ারী আফির মাস্টারের নিয়োজিত লোকজন বোনের পেটের বাচ্চা নস্ট করার উদ্দেশ্য সি.এন.জিতে উঠিয়ে নিয়ে যায় তাকে। পরের দিন দুপুরে ফিরে আসে সে।

তিনি আরো জানান, ঐ পক্ষ থেকে ১ লক্ষ টাকা দিয়ে আমাদের সাথে আপোষ করতে বলেছে । আমরা গরীব মানুষ, টাকা পয়সা নাই, সরকারী জমিতে থাকি। তাই বিচার পাচ্ছিনা। আমাদেরকে এ জমি থেকে উঠিয়ে দিবে এবং আমাদেরকে মাদকের ব্যবসায়ী বানিয়ে পুলিশে দিবে- এমন হুমকিও দেওয়া হচ্ছে। তাই আমরা ভয়ে কোন কিছু বলতে পারিনা।

এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আফির উদ্দিন মাস্টার গা ঢাকা দিয়েছিল। তবে তার স্কুলের প্রধান শিক্ষক নুরজাহান বেগম জানিয়েছিলেন, আফির উদ্দিন মাস্টার ডেপুটেশনে পি.টি.আই ট্রেনিং-এ রয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর অন্তসত্ত্বা