banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিবেদক: শহীদ মিনার ও ছাত্রী কমনরুম উদ্বোধন করতে এসে অধ্যক্ষকে সেমিনার রুম থেকে বের দিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। মঙ্গলবার দুপুরে পুরান ঢাকার সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজে এ ঘটনা ঘটে।

শিক্ষা ক্যাডারের কর্মকর্তা হয়েও ইফতেকার আলী বেসরকারি কলেজের অধ্যক্ষ পদে আছেন এমন সংবাদ প্রকাশের কারণে তাকে বের করে দেন মন্ত্রী। এদিকে মন্ত্রীর এমন আচরণে ক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা কলেজে ভাংচুর ও বিক্ষোভ করেছে। এ ঘটনা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

নাম প্রকাশ না শর্তে অনুষ্ঠানে উপস্থিত একজন জানান, ‘কলেজের শহীদ মিনার ও ছাত্রী কমনরুম উদ্বোধন করতে কলেজে আসেন শিক্ষামন্ত্রী। এ সময় অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে করা একটি নিউজের পেপার কাটিং পৌছায়। অভিযোগ পাওয়ায় শিক্ষা মন্ত্রী বলেন- যেহেতু অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ পেলাম তাহলে সেহেতু প্রিন্সিপাল এই মিটিংয়ে না থাকায় ভালো। নিউজের বিষয়টি তদন্ত করব তারপর এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন মন্ত্রী। এরপর মিটিং শুরু হয় এবং মন্ত্রী অনুষ্ঠান শেষ করে চলে যান। এই ঘটনা কলেজে জানাজানি হলে ছাত্রীরা হৈইচই শুরু করে এবং গাড়ি ভাংচুর করে। পরে শিক্ষকদের হস্তক্ষেপে শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে পাঠিয়ে দেয়া হয়।’

এ বিষয়ে কলেজের পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রফেসর নুরুল ইসলাম বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটিয়েছে। আর অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে একটি তদন্ত চলছে তবে এই ব্যাপারে মন্তব্য করা ঠিক হবে না।’

অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে কী ধরণের অভিযোগ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তার নিয়োগ বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। তবে এই নিয়োগ শিক্ষামন্ত্রণালয় করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় দেয় না। মন্ত্রণালয় এবং পরিচালনা পরিষদের সিদ্ধান্তে তার নিয়োগ দেওয়া হয়।’

শিক্ষার্থীরা কেন ক্ষুদ্ধ হল জানতে চাইলে প্রফেসর নুরুল ইসলাম বলেন, ‘দীর্ঘ আঠারো মাস এই কলেজে অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার অধ্যক্ষ ছাত্রী কমনরুম, শহীদ মিনার, ল্যাবরেটরীসহ অবকাঠানোগত অনেক উন্নয়ন করেছেন; যেগুলো অকল্পনীয়। এই কারণে ছাত্রীরা মহাখুশি।’

জানা যায়, বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারভুক্ত সরকারি কলেজ শিক্ষক হয়েও লিয়েনে অবৈধভাবে বেসরকারি কলেজের অধ্যক্ষ পদে আসার অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। তাকে প্রচলিত বিধান অনুযায়ী কলেজটিতে নিয়োগ দেয়া হয়নি। কলেজটিতে নিষিদ্ধ নোট-গাইড বই সিলেবাসে অন্তর্ভুক্তকরণের অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। তিনি এর আগে ঢাকা কলেজে ছিলেন। তিনি স্বেচ্ছাচারিভাবে কলেজে পরিচালনা করছেন। এছাড়া শিক্ষকদের হয়রানির অভিযোগ এসেছে এই অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে।

ট্যাগ: bdnewshour24 অধ্যক্ষ