banglanewspaper

ফরহাদ খান, নড়াইল: লাখো প্রদীপ জ্বেলে নড়াইলে ভাষা শহীদদের স্মরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ খেলার মাঠে (কুরিডোব মাঠ) মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।

মোমবাতির আলোয় আলোকিত হয়ে উঠে শহীদ মিনার, জাতীয় স্মৃতিসৌধ, বর্ণমালা, অল্পনাসহ দেশের নানান ঐতিহ্য। এছাড়া ওড়ানো হয় ফানুস। 

একুশ উদযাপন পর্ষদের আহবায়ক প্রফেসর মুন্সি হাফিজুর রহমান জানান, এ কাজে প্রায় চার হাজার স্বেচ্ছাসেবী অংশগ্রহণ করেন। প্রায় ছয় একরের মাঠটি সন্ধ্যায় আলোকিত হয়ে উঠে। অনুষ্ঠানে ‘আমার ভাইয়ের রক্ত রাঙানো ২১ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’ গানসহ বিভিন্ন ধরণের গান পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীরা

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক রবিউল ইসলাম, পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম পিপিএম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শরফুদ্দীন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইয়ারুল ইসলাম, নড়াইলের পুলিশ সুপারের স্ত্রী শিক্ষাবিদ নাহিদা আক্তার চৌধুরী সুমি, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সালমা সেলিম, নাট্যকার ও অভিনেতা কচি খন্দকার, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাবেয়া ইউসুফ, আওয়ামী লীগ নেতা ওমর ফারুক, রেজাউল বিশ্বাস, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শরফুল আলম লিটু প্রমুখ। 

আয়োজকরা জানান, ভাষা শহীদদের স্মরণে ১৯৯৮ সালে নড়াইলে এই ব্যতিক্রমী আয়োজন শুরু হয়। প্রথমবার নড়াইলের সুলতান মঞ্চসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে প্রায় ১০ হাজার মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। এরপর থেকে নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ খেলার মাঠে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করে ভাষা শহীদদের স্মরণ করা হচ্ছে।

প্রতিবছর এর ব্যপ্তি বেড়েছে। এ বছর (২০১৯) প্রায় এক লাখ মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা  হয়। এ আয়োজন সফল করতে প্রায় একমাস যাবত কাজ করেন নড়াইলের সাংস্কৃতিককর্মী, স্বেচ্ছাসেবকসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ। স্কয়ারের সহযোগিতায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়েছে।

মাছরাঙা টেলিভিশন সরাসরি সম্প্রচার করে লাখো প্রদীপ প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানটি।

ট্যাগ: bdnewshour24 লাখো প্রদীপ নড়াইল শহীদদের স্মরণ