banglanewspaper

পুরান ঢাকা থেকে যেকোন মূল্যে কেমিক্যাল গোডাউন সরিয়ে নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান প্রকৌশলী রেজাউল করিম। তিনি বলেন, কেমিক্যাল গোডাউন সরাতে আমরা প্রতিনিয়তই চেষ্টা করে যাচ্ছি।

ডিএসসিসি গঠিত ১১ সদস্যের একটি কমিটি শুক্রবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যায়।

পরিদর্শন শেষে কমিটির প্রধান ও ডিএসসিসির প্রধান প্রকৌশলী রেজাউল করিম বলেন, আমরা সকাল ৯টার পর ক্ষতিগ্রস্থ ভবনগুলো পরিদর্শনে এসেছি। আগুনে পাঁচটি ভবন ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি ভবন প্রাথমিকভাবে ব্যবহারের অনুপযোগী বলে মনে হয়েছে।

আবাসিক এলাকায় কেমিক্যাল গোডাউনের অনুমতি নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকারের নির্দেশনার পর নতুন করে আর কোনো লাইসেন্স দেওয়া হয়নি। এ ঘটনায় কয়েকটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের রিপোর্টের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মেয়র (সাঈদ খোকন) বলেছেন, যেকোনো মূল্যে সবাই মিলে এসব এলাকার কেমিক্যাল গোডাউন সরিয়ে নেওয়া হবে।

এতোদিন সরানো হয়নি কেন জানতে চাইলে এ প্রকৌশলী বলেন, আমরা প্রতিনিয়তই চেষ্টা করে যাচ্ছি। এবার যেকোনো মূল্যে সেসব (কেমিক্যাল গোডাউন) সরিয়ে নেওয়া হবে।

এদিকে ক্ষতিগ্রস্ত ভবনগুলো ব্যবহারের উপযোগী কিনা তা এক সপ্তাহ পর জানা যাবে বলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে জানিয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অধ্যাপক ড. মেহেদী আহমেদ আনসারী (পুর কৌশল বিভাগ)।

তিনি বলেন, অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হওয়া ওয়াহিদ ম্যানশনের গ্রাউন্ড ফ্লোর ও দ্বিতীয় তলা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বিম ও কলামগুলো বিশেষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তৃতীয় ও চতুর্থ তলার বিম ও কলাম তেমন ক্ষতিগ্রস্থ হয়নি। তবে কতোটা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এ বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। এক সপ্তাহ পর জানা যাবে, ভবনটি ব্যবহারের উপযোগী কিনা।

ট্যাগ: bdnewshour24 গাড়িতে সিলিন্ডার