banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘সাইন্টিফিক রিসার্চ, হ্যাকার্স এন্ড ফাউন্ডারস (এইচ/এফ), পালো আল্টো'র পরিচালক এবং যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির সাবেক গবেষণা অধ্যাপক ড. অ্যান্টনিও হায়দার ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এ এক সেমিনারে অংশ নিতে সম্প্রতি ঢাকায় এসেছেন।

১৮ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি মূলত ব্যবসা এবং দৈনন্দিন জীবনে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহারে কোন পন্থা অবলম্বন করা যেতে পারে সে বিষয়ের উপর আলোকপাত করেছেন। সেমিনারে তিনি বিভিন্ন কোম্পানির তথ্য উপাত্ত উপস্থাপন করেন এবং দেশের বিভিন্ন সেক্টরের দক্ষতা অর্জনের জন্য তথ্য বিশ্লেষণে নিজের আকাঙ্খা প্রকাশ করেন।

ড. হায়দার ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এ যৌথভাবে গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত অধ্যাপক হিসাবে কাজ করতে সম্মত হন। বিজনেস স্কুল এর প্রধান ড. সেলিম আহমেদ মনে করেন ড. অ্যান্টনিও হায়দার এর এই সম্মতি, তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়ন ও শিক্ষার ক্ষেত্রে আমাদের জন্য একটি বড় সুযোগ।

সেমিনারে উপস্থিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় ও তথ্য ব্যবস্থাপনার অধ্যাপক ড. মুসফিক মান্নান চৌধুরী, মানুষের তথ্য বোঝার এবং তা বিশ্লেষণ করে সমাধানে পৌঁছার সীমাবদ্ধতা নিয়ে আলোচনা করেন।

এছাড়াও সভায় উপস্থিত অন্যান্যরা বিভিন্ন প্রকল্প ও তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণের বিভিন্ন উপায় নিয়ে আলোচনা করেন, যা গবেষণার আধুনিক ধারাগুলিকে সহজ করবে। বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় গবেষণাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যেতে এই নতুন ধারণাগুলো সহায়ক হিসেবে কাজ করবে। ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের ভবিষ্যত শিক্ষা কার্যক্রম এক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

ট্যাগ: bdnewshour24 প্রযুক্তিগত বাধা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা