banglanewspaper

চকবাজার বিস্ফোরণের কারণ হিসেবে তিনটি বিষয়কে বিবেচনায় রেখেছে বিস্ফোরক পরিদপ্তর। সংস্থাটির প্রধান পরিদর্শক শামসুল আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শ করে বলেছেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে তিনটি কারণে আগুন লাগতে পারে। কারণগুলো হচ্ছে ট্রান্সফরমার, গ্যাস সিলিন্ডার অথবা কেমিক্যাল বিস্ফোরণ।’

শুক্রবার চকবাজারে আগুন লাগার ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন শামসুল আলম।

বুধবার রাতে চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ব্যাপক আগুন লাগে। বৃহস্পতিবার সকালে মৃতের সংখ্যা বাড়তে বাড়তে ৮১ বলে জানায় ফায়ার সার্ভিস। যদিও পরে তা কমিয়ে ৬৭ করা হয়।

শুরুতে ধারণা করা হচ্ছিল, ওয়াহেদ ম্যানসন নামে একটি ভবনের রাসায়নিকের গুদামে আগুন লাগে। কিন্তু পরে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, একটি গাড়ির সিলিন্ডার বিস্ফোরণের পর আগুন ছড়িয়ে যায়। এরই মধ্যে একটি ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে, যেখানে দেখা যায়, ভবনের বাইরে একের পর এক বিস্ফোরণ হচ্ছে। পরে সে আগুন ওয়াহেদ ম্যানসনে ছড়ায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের পর পাশের একটি খাবার হোটেলের রান্নার জন্য গ্যাসের সিলিন্ডারও বিস্ফোরিত হয়। মানুষ মারা গেছে রাস্তায়, খাবার হোটেলেও।

আগুন লাগার কারণ জানতে এরই মধ্যে বিস্ফোরক পরিদপ্তর থেকে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। বাকি দুই সদস্য হলেন পরিদর্শক মুনীরা ইয়াসমিন ও তোফাজ্জল হোসেন। এই কমিটিকে আগামী সাতদিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

পরিদর্শক শামসুল আলম বলেন, ‘আমরা কয়েকটি গাড়ি চেক করেছি। অনেকেই দুর্ঘটনাস্থলে থাকা যেই পিকআপটির সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আগুনের সূত্রপাতের কথা বলেছিল। কিন্তু সেই পিকআপের সিলিন্ডারটি অক্ষত অবস্থায় আছে।’

‘ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখা গেছে এই এলাকায় বেশ কিছু কেমিক্যালের দোকান রয়েছে। তাছাড়া ওয়াহিদ ম্যানশনের নিচে কিছু প্লাস্টিকের দানার দোকান ছিল। এ কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে।’

‘আমরা যে সিলিন্ডারের লাইসেন্স দেই সেটি আবাসিক ও বাণিজ্যিক দুই কারণেই দেই। কিন্তু কোন এলাকায় কী পরিমাণ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রি থাকবে সেটা আমাদের দেখার বিষয় নয়। সেটি দেখে রাজউক।’

ট্যাগ: bdnewshour24 আগুনের সম্ভাব্য কারণ