banglanewspaper

ঢাকা আইনজীবী সমিতির (বার) ২০১৯-২০ কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচনে আওয়ামী সমর্থিত আইনজীবীদের ‘সাদা প্যানেল’ নিরঙ্কুশ জয় পেয়েছে। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ২৭ পদের মধ্যে ১৮টিই পেয়েছে সাদা প্যানেল। নির্বাচনে সভাপতি হয়েছেন গাজী শাহ আলম। আর সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন আসাদুজ্জামান খান (রচি)।

এছাড়া বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেলের ব্যানারে ‘নীল প্যানেল’ সিনিয়র সহ-সভাপতিসহ পেয়েছে ৯ পদ।

শুক্রবার দিবাগত রাতে ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

সাদা প্যানেলে জয়ীরা হলেন- সভাপতি গাজী মো. শাহ আলম, সহ-সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন দুলাল, সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান খান (রচি), ট্রেজারার আব্দুল জলিল আফ্রাদ (কবির), সিনিয়র সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ওমর ফারুক (আসিফ), দপ্তর সম্পাদক মো. জাহিদুল ইসলাম (কাদির), ক্রীড়া সম্পাদক মো. উজ্জ্বল মিয়া, সমাজকল্যাণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির টগর। সদস্য পদে- আয়শা বিনতে আলী, হায়াত আল মাহমুদ (ঝিকূ), কাউসার হাসান, মো. ইব্রাহিম হোসেন, মো. জুয়েল সিকদার, মো. মাসুম মিয়া, সোহরাব হোসেন, তানভীর আহম্মেদ (সজীব), তুসার ঘোস।

নীল প্যানেল সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম দেওয়ান, গ্রন্থাগার সম্পাদক জিয়াউল হক জিয়া, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোর্শেদা খাতুন শিল্পী, সদস্য পদে- কাজী রওশনা দিল আফরোজ, মো. ইব্রাহিম (খলিল), মো. মেহেদী হাসান জুয়েল, মিসেস. ফারহানা আক্তার লুবনা, শাহীন সুলতানা (খুকি) ও ইকবাল মাহমুদ সরকার।

গত ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণের সময় নির্দিষ্ট ছিল। ২৭ ফেব্রুয়ারি প্রথমদিন ৪ হাজার ৬৪২ জন ভোট দেন। পরদিনও ভোটগ্রহণ হওয়ার কথা থাকলেও বৈরি আবহাওয়া ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের কারণে তারিখ পিছিয়ে ৭ মার্চ করা হয়। সেদিন ভোট দেন ৪ হাজার ৭২২ জন।

নির্বাচনে আওয়ামী সমর্থিত আইনজীবীদের সমন্বয়ে গঠিত ‘সাদা প্যানেল’ ছাড়াও বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত আইনজীবীরা ‘নীল প্যানেলে’ প্রার্থী দিয়েছেন। সব মিলিয়ে এবার সমিতির ২৭টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫৭ জন প্রার্থী।

ট্যাগ: bdnewshour24 ঢাকা বার