banglanewspaper

পরকীয়া সম্পর্কের জন্য মেগাসিরিয়াল দায়ী কিনা তা জানতে চেয়েছে ভারতের মাদ্রাজ হাইকোর্ট। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে কেন্দ্র ও রাজ্যকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এমনকি ইন্টারনেটের অতিরিক্ত ব্যবহারের কারণেও পরকীয়া বাড়ছে কিনা, তা দেখারও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ভারতে পরকীয়ার কারণে হিংসাত্মক ঘটনা বেড়ে গেছে, এমনটাই পর্যবেক্ষণ করেছে মাদ্রাজ হাইকোর্ট। আদালত মোট ২০টি প্রশ্নের একটি তালিকা তৈরি করেছে। যার মধ্যে অন্যতম পরকীয়ায় মেগা সিরিয়ালের প্রভাব।

মাদ্রাজ হাইকোর্ট প্রশ্ন করেছে, মেগাসিরিয়ালের সঙ্গে কিছু সিনেমাও কি দেশে পরকীয়া সম্পর্ক বেড়ে যাওয়ার কারণগুলোর মধ্যে একটা? এই প্রশ্নের সঙ্গে মাদ্রাজ হাইকোর্ট এ-ও বলেছে, খুন, অপহরণ ইত্যাদির সঙ্গে পরকীয়ার একটা যোগ দেখা যাচ্ছে। তারপরই মেগাসিরিয়াল-সংক্রান্ত প্রশ্নটি রাখা হয়।

প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, ইন্টারনেট-দুনিয়া ছাড়াও আধুনিকীকরণ কিংবা পশ্চিমা দেশগুলোর প্রভাবও পরকীয়া বেড়ে যাওয়ার কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখতে বলেছেন আদালত। ফেসবুক, ফেসটাইম, হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টাগ্রামের ফলে অপরিচিত ব্যক্তিদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতার সুযোগ বাড়ার ফলে এমন ঘটনা ঘটছে কিনা, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে আদালত জানতে চেয়েছে যে, পশ্চিমা দেশগুলোর প্রভাবের ফলে রক্ষণশীল সমাজে থেকেও প্রথা ভাঙার ধারা শুরু হয়েছে কি না।

মামলাটি আগামী জুন মাসের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত স্থগিত রাখা হয়েছে। পরকীয়া সংক্রান্ত সমস্যার জেরে রাজ্যে গত ১০ বছরে কতজনের মৃত্যু হয়েছে, প্রশাসনের কাছে জানতে চেয়েছে আদালত।

সূত্র: আনন্দবাজার

ট্যাগ: bdnewshour24 পরকীয়া মেগাসিরিয়াল আদালত