banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: চোর আপনার মোটরসাইকেল চুরি করতে গেলেই গাড়ীতে থাকা এলাম  আপনাকে জানিয়ে দিবে চোরের আগমন। এমন এক লক আবিস্কার করলেন মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামের রহমত উল্লার পুত্র মোঃ সাহাব উদ্দিন। 

ATS (Anti theft System)  যা  RFID  বা Radio Frequency Identification এর মাধ্যমে কাজ করে। এস টি পি পাওয়ার অ্যান্টি থেফট সিস্টেম মোটরসাইকেলের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ যন্ত্র,  যার প্রস্ততকারক এস টি পি  পাওয়ার।  মোটরসাইকেলের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই এটা বাজারে এনেছেন তিনি। এটা সম্পূর্ণ নতুন এবং বলা চলে একপ্রকার অভূতপূর্ব নিরাপত্তা যন্ত্র। প্রথাগত লকিং সিস্টেমের চেয়ে উন্নত কিংবা সেটাকে আরো বেশি জোরদার করে তুলবে এই যন্ত্রটি।

মোটরবাইক ব্যবহারকারীদের কাছে এর নিরাপত্তা সবচেয়ে বড়ো সমস্যা। চোর–ছিনতাইকারীদের উৎপাত বর্তমানে প্রচণ্ড বেড়ে গেছে। তাছাড়া তারা প্রথাগত লকিং সিস্টেম ভাঙতেও অনেক বেশি দক্ষ্য হয়ে উঠেছে। যার ফলে মোটরবাইক পার্কিং করার পর থেকেই মনের মধ্যে আশঙ্কা কাজ করতে থাকে– কী জানি কী হয়! এমনকি অনেক সময় একাধিক তালা ও বার্গলার অ্যালার্ম ব্যবহার করেও পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যায় না। আর এখন তো অবস্থা এতোই শোচনীয় যে, বাসার গ্যারেজও নিরাপদ নয়!

সেজন্যই এস টি পি  পাওয়ার  এই আরো নতুন ও অত্যাধুনিক নিরাপত্তা যন্ত্রটি প্রস্তুত করেছে। তাহলে চলুন শুরু যাক…

এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম – ফিচারসমূহ

এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম একটি সমন্বিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এর মধ্যে রয়েছে

অ্যান্টি থেফট অ্যালার্ম সিস্টেম
স্বয়ংক্রিয় ইগনিশন লক
স্বয়ংক্রিয় ইঞ্জিন ইমমোবিলাইজার
ইমারজেন্সি লাইট কন্ট্রোলার
অটো হেড লাইট অন-অফ
অন-অফ সিগন্যাল
ব্যাটারির সঙ্গে  কোন সংযুক্ত নেই (অফ মুডে)
এটি একটি ওয়াটার প্রুফ যন্ত্র।
এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম -এ এই সবগুলো সুবিধাই একত্রে পাওয়া যায়। আপনাকে এগুলো আলাদা করে সক্রিয় করতে হবে না, যেটা বার্গলার অ্যালার্ম বা অন্যান্য নিরাপত্তা যন্ত্রের ক্ষেত্রে ম্যানুয়ালি সক্রিয় করতে হয়। বরং এই যন্ত্রটি একবার লাগিয়ে নিলে তা সবসময় সক্রিয় থাকবে। ইঞ্জিন বন্ধ করে ইগনিশন থেকে চাবি খুলে নিলেই নিরাপত্তা ব্যবস্থাটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু হয়ে যাবে।

এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম – যেভাবে কাজ করে

আপনার বাইকে এস টি পি পাওয়ার অ্যান্টি থেফট সিস্টেম লাগানো হলে, অন্য কেউ তা স্টার্ট করতে পারবে না; এমনকি যদি তার কাছে আসল চাবি থাকে তার পরও বাইক স্টার্ট নিবে না। মালিকের বিনা অনুমতিতে চাবি দিয়ে বাইক স্টার্ট দেওয়ার চেষ্টা করলে সাত সেকেন্ড পর অ্যালার্ম চালু হয়ে যাবে এবং ইঞ্জিন স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যাবে। এভাবে ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে গেলে মালিকের কাছে থাকা আরএফআইডি সেন্সর বাইকের সেন্সরে লাগিয়ে এটিএস নিষ্ক্রিয় না করা পর্যন্ত বাইক আর চালু হবে না।

এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম – নিরাপত্তা সীমা

এস টি পি পাওয়ার অ্যান্টি থেফট সিস্টেম  বাইকের মূল ওয়্যারিং সিস্টেমের সঙ্গে সিরিজ আকারে সংযুক্ত করা হয়। এটি ব্যাটারি, ইগনিশন কী’র মাধ্যমে ইগনিশন কয়েল, সিডিআই সিস্টেম ও হর্নের সঙ্গে সিরিজ সংযোগে যুক্ত থাকে। ফলে কেউ যদি যেকোনো একটি তার ছিড়ে শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে বাইক স্টার্ট দিতে চায়, সেটা পারবে না। উপরন্তু বাইকটি নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়বে ও কোনোভাবেই আর স্টার্ট নিবে না।

এস টি পি পাওয়ার অ্যান্টি থেফট সিস্টেমের  আরকেটি সুবিধা হলো, কেউ যদি যন্ত্রটির সঙ্গে ব্যাটারির সংযোগ খুলে তা নিষ্ক্রিয় করতে চায় তবুও তা পারবে না। কারণ এ কাজ করতে হলে চোরকে বাইকের মূল ওয়্যারিং ব্যবস্থা ছিড়তে হবে, যা করলে বাইক আর স্টার্ট নিবে না। তাহলে বুঝতেই পারছেন, এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম-এর নিরাপত্তা সীমা কতোটুকু!

এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম – কীভাবে ব্যবহার করবেন

এই নিরাপত্তা যন্ত্রটি চালানো খুবই সহজ। ব্যবহারকারীকে কোনো ঝামেলাই পোহাতে হবে না। আপনাকে শুধু আপনার হাতে থাকা আরএফআইডি সেন্সরের ব্যাপারে সাবধান থাকতে হবে। এটা আপনি আপনার চাবির রিংয়ের সঙ্গে বা আলাদা করে পকেটেও রাখতে পারেন।

এই নিরাপত্তা ব্যবস্থাটিতে একটি আরএফআইডি সেন্সর আপনার বাইকে বাইকে লাগানো থাকে এবং অপরটি আপনার হাতে থাকবে। বাইক চালু করার সময় আপনাকে বাইকে চাবি লাগিয়ে হাতে থাকা সেন্সরটি বাইকের গোপনীয় স্থানে লাগানো সেন্সরের গায়ে ধরতে হবে। এরপর আপনি বাইক স্টার্ট দিতে পারবেন। কিন্তু আপনি যদি ইগনিশন চালু করার আগে কিংবা তার সাত সেকেন্ডের মাঝে সেন্সর দুটি পরস্পরের সঙ্গে না লাগান তবে বার্গলার অ্যালার্ম বেজে উঠবে। এমন হলে আপনাকে অ্যালার্ম নিষ্ক্রিয় করতে হবে। এজন্য হাতে থাকা আরএফআইডি সেন্সরটি বাইকের সেন্সরে লাগালেই অ্যালার্ম বন্ধ হয়ে যাবে। তা না করলে অ্যালার্ম বাজতেই থাকবে এবং বাইকের ইঞ্জিন আর চালু হবে না। তাহলে পাঠক, বুঝতেই পারছেন, এটিএস পাওয়ার আপনার বাইকের জন্য একটি আধুনিক ও যগোপুযোগী স্মার্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এটা ব্যবহার করাও খুব সোজা এবং আপনি সহজেই তা বুঝতে পারবেন। তবে এটা অবশ্যই জেনে রাখবেন যে, এটা নিশ্চিত নিরাপত্তা দান করে। আমরা চেষ্টা করেছি এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম সম্পর্কে বিস্তারিত বলার। এটার পরীক্ষামূলক ব্যবহার করে  বলতে পারি যে, এই নিরাপত্তা ব্যবস্থা আপনার বাইকের নিরাপত্তা ঘাটতি দূর করে আপনাকে নিরাপত্তার ব্যাপারে পূর্ণ নিশ্চয়তা দিবে। এছাড়াও এর রিমোটের ব্যাটারীর চার্জ প্রয়োজন নেই। 

এস টি পি  পাওয়ার  অ্যান্টি থেফট সিস্টেম – তথ্য ও সহায়তা

এস টি পি  পাওয়ার
ক -৯৫/১, কুরাটোলি মসজিদ রোড, খিলক্ষেত,ঢাকা – ১২২৯

হটলাইন :  ০১৭৪৬৪২৯৮৫৭,

বর্তমানে গাজীপুরের মাওনায় বাজাজ শো রুমে "এটিএস পাওয়ার" ডিভাইসটি পাওয়া যায়। 

ট্যাগ: bdnewshour24 মোটরসাইকেল শ্রীপুর