banglanewspaper

 

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে শ্বেতাঙ্গ জঙ্গির নৃশংস হামলায় নিহত ৫ বাংলাদেশির মধ্যে ৩ মরদেহ দেশে আনা হবে। বাকি দুই জনের মরদেহ নিউজিল্যান্ডেই সমাহিত করা হচ্ছে। 

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সুত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ড. আবদুস সামাদ ও সিলেটের ফরিদ আহমেদের স্ত্রী হোসনে আরা আহমেদ নিউজিল্যান্ডেই সমাহিত হচ্ছেন। বাকি ৩ জনের লাশ দেশে আনার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তবে ওই পরিবারগুলোর উপযুক্ত প্রতিনিধি নির্বাচনে বিলম্ব হওয়া এবং পরিবার প্রতি একজনকে নিউজিল্যান্ডে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হওয়ায় তাদের লাশ দেশে পৌঁছাতে সময় লাগছে।

নরসিংদীর বাসিন্দা জাকারিয়া ভূঁইয়ার স্ত্রী নিউজিল্যান্ডের পথে। আজ বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সেখানে পৌছাবেন। এরপর সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে তিনি মরদেহ সংগ্রহ করবেন। আর নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানার বাসিন্দা মো. ওমর ফারুক ও চাঁদপুরের মোজাম্মেল হকের পরিবারের প্রতিনিধি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। আজ-কালের মধ্যে প্রতিনিধি চূড়ান্ত করে তারাও রওনা হবেন।

উল্লেখ্য, নিহত ব্যক্তিদের স্ত্রী, সন্তান, পিতা বা মাতা অথবা ঘনিষ্ঠ কাউকে (যার প্রতি নিহতের পরিবারের আস্থা আছে) নিউজিল্যান্ডে নিয়ে গিয়ে লাশ হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার। পরিবার প্রতি একজনকে দেশটিতে নিয়ে যাওয়া, লাশ দেশে পৌঁছানো এবং দাফন-কাফন সংক্রান্ত যাবতীয় ব্যয় নিউজিল্যান্ড সরকারই বহন করবে। কোনো নিহতের পরিবার যদি ক্ষতিপূরণ চায় তা-ও দেয়ার কথা জানিয়েছে নিউজিল্যান্ড সরকার। 

ট্যাগ: bdnewshour24 বাংলাদেশি