banglanewspaper

এবার ঈদযাত্রায় ট্রেনের টিকিট কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ছাড়াও রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন স্থানে বিক্রি হবে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। এ ছাড়া চলতি মাসেই চালু হবে রেলওয়ে অ্যাপস, ফলে ঘরে বসেই টিকিট কাটা যাবে বলেও জানান তিনি।

শুক্রবার কমলাপুর স্টেশন পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ তথ্য জানান।

কমলাপুর রেলস্টেশনের পরিচ্ছন্নতাসহ সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর নেন তিনি। কথা বলেন যাত্রীদের সঙ্গে, তিনি তাদের অভিযোগও শোনেন।

পরে উপস্থিত সাংবাদিকদের রেলমন্ত্রী বলেন, চলতি মাসের মধ্যেই রেলওয়ে অ্যাপস চালু হতে যাচ্ছে। এ অ্যাপ চালু হলে রেলওয়ে যাত্রীদের সেবায় আমূল পরিবর্তন আসবে। তখন আর কাউন্টার থেকে টিকিট সংগ্রহ করতে হবে না যাত্রীদের। অনলাইনের মাধ্যমে অ্যাপস ব্যবহার করে সাধারণ যাত্রীরা টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন ঘরে বসেই।

ফলে যাত্রীদের দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে ভোগান্তি নিয়ে টিকিট সংগ্রহ করতে হবে না। বর্তমান সরকার রেলের সেবা বাড়াতে কাজ করছে।

তিনি বলেন, পহেলা বৈশাখে আমরা ঢাকা-রাজশাহীর মধ্যে একটি বিরতিহীন ট্রেন চালু করার উদ্যোগ নিয়েছি। আশা করছি, আমরা সেসময় ট্রেন চালু করতে পারব। ইন্দোনেশিয়া থেকে কোচ আনা হয়েছে, সেগুলো সংযোজন করা হবে ট্রেনটিতে। এ ট্রেনটি বিরতিহীন হওয়ায় অন্য কোনো স্টেশনে দাঁড়াবে না। ফলে খুব অল্প সময়ের মধ্যে রাজশাহী থেকে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে রাজশাহী যাওয়া-আসা করতে পারবেন যাত্রীরা।

নুরুল ইসলাম সুজন জানান, ঈদের সময় টিকিট সংগ্রহে যাত্রীদের নানা ভোগান্তি পোহাতে হয়। দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট সংগ্রহ করতে হয়। এবার অ্যাপ চালু হলে সচেতন যাত্রীরা ঘরে বসেই অনলাইনের মাধ্যমে অ্যাপস ব্যবহার করে টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন।

এ ছাড়া আমরা চিন্তা করছি ঈদযাত্রায় রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে টিকিট বিক্রির উদ্যোগ নিতে। রেলওয়েকে এগিয়ে নিতে আমরা বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। আশা করা যায়, খুব অল্প সময়ের মধ্যে জনগণ রেলের সর্বোচ্চ সেবা পাবেন।

এ সময় রেলওয়ে মহাপরিচালক, রেলওয়ে রেলওয়ে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা এবং কমলাপুর স্টেশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 ঈদ ট্রেনের টিকিট