banglanewspaper

আবহাওয়া পরিবর্তনের এই সময়ে জ্বর-ঠাণ্ডা, সর্দি-কাশি, মাথাব্যথা ইত্যাদিতে কাবু হবেন অনেকেই।

এই ধরনের মৌসুমি অসুস্থতার কারণে অনেকেই হুট করে ওষুধ খেয়ে নেন।

তবে জার্মানির গবেষকরা জানাচ্ছেন ভিন্ন কথা। তাদের গবেষণায় দেখা গেছে ওষুধ নয় বরং শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অক্ষুণ্ন রাখতে প্রথমে যে কাজটি করা উচিত তা হল ঘুমানো।

জার্নাল অফ এক্সপেরিমেন্টাল মেডিসিন’য়ে প্রকাশিত এই গবেষণা-পত্রে গবেষকরা জানান, এই ধরনের মৌসুমি অসুস্থতায় প্রথমেই ওষুধ খাওয়া উচিত না।

গবেষণার জন্য ১০ জনকে পর্যবেক্ষণ করেন গবেষকরা। এদের মধ্যে পাঁচ জনকে একরাত জাগিয়ে রাখা হয়। আর বাকিদের স্বাভাবিক নিয়মে ঘুমাতে দেওয়া হয়।

দুই সপ্তাহ এমনটা চলার পর দুই দলের নিয়ম উল্টে দেওয়া হয়।

পরবর্তীতে ১০ জনেরই রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেন গবেষকরা। তা থেকে পরিমাপ করা হয় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাসম্পন্ন ‘টি সেল’য়ের মাত্রা।

ফলাফলে জার্মানির ‘ইউনিভার্সিটি অফ টুবিগান’য়ের অধ্যাপক এবং এই গবেষণার প্রধান স্টোয়ান ডিমিত্রফ বলেন, “ঘুমানোর মাধ্যমে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাসম্পন্ন ‘টি সেল’য়ের কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায়। আর ক্রমবর্ধমান ঘুমজণীত সমস্যার সমাধানে এই বিশেষ কোষ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।”

তাই যখনই শরীর দূর্বল লাগবে, মনে হবে অসুস্থ হতে পারেন তখনই ঘুমিয়ে পড়ুন। আর অফিসে থাকলে বসকে বলুন এখন আপনাকে ঘুমাতে হবেই।

ট্যাগ: bdnewshour24 জ্বর