banglanewspaper

১৯৬২ সালে নির্দল প্রার্থী হিসেবে প্রথমবার ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন। তারপর টানা ৩২ বার ভারতের লোকসভা, রাজ্যসভা, বিধানসভার বিভিন্ন ভোটে লড়লেও একবারও জিততে পারেননি। কিন্তু তা সত্ত্বেও একটুও দমেননি ৮৪ বছরের শ্যামবাবু সুবুধি।

এবার প্রধানমন্ত্রী পদে লড়তে নেমেছেন ওড়িশার এই বাসিন্দা। এবার ওড়িশার আস্কা এবং বেরহামপুর থেকে প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য লড়ছেন শ্যামবাবু।

বললেন, ‘নিজেই ট্রেনে, বাসে, বাজারে গিয়ে প্রচার করি। জেতা বা হারা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়, আমাকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইটা চালিয়ে যেতে হবে।’‌
শ্যামবাবুর নির্বাচনী প্রতীক ক্রিকেট ব্যাট। তার উপরে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী শব্দটি লিখে একাই প্রচার চালাচ্ছেন বৃদ্ধ।

সাধারণ মানুষও স্বতঃস্ফূর্ত হয়ে তার প্রচারপত্র গ্রহণ করছেন। পেশায় হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক শ্যামবাবু এর আগে প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী পি ভি নরসিংহ রাও এবং ওড়িশার প্রয়াত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিজু পট্টনায়েকের বিরুদ্ধেও লড়েছিলেন।

জানালেন বহুবারই বিভিন্ন রাজনৈতিক দল তাকে নিজেদের সদস্য করতে প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু সব প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন। এই নির্দল প্রার্থী জানালেন, যেভাবে ভোটারদের মন জয় করতে টাকার খেলা হয় বর্তমান রাজনীতিতে তা তাকে পীড়া দেয়। আগামী ১১ জুন ওড়িশার তিনটি রাজ্যসভা আসনের নির্বাচন। সেখানেও লড়বেন বলে জানালেন শ্যামবাবু সুবুধি।

ওয়েবসাইট

ট্যাগ: bdnewshour24 পরাজিত প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী