banglanewspaper

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় আগুনে ঝলসে দেওয়া মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নুসরাতের পরিবার রাজি হলেই তাকে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হবে।

সোমবার (৮ এপ্রিল) বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নুসরাতকে দেখতে গিয়ে আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর সহকারী সচিব ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। এসময় বার্ন ইউনিটের সমন্বয়ক সামন্ত লাল সেন পাশেই ছিলেন।

ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমি এখানে (ঢামেক বার্ন ইউনিট) এসেছি। প্রধানমন্ত্রী ওই শিক্ষার্থীর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। এই ঘটনায় যারা জড়িত তাদের বিচার হবেই।’

জানা গেছে, ইতোমধ্যে সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে নুসরাত জাহানের সর্বশেষ স্বাস্থ্যের অবস্থার কাগজপত্র পাঠানো হয়েছে।

সাংবাদিকদের সামান্ত লাল সেন বলেন, ‘ওই শিক্ষার্থীকে যাতে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয় সে বিষয়ে কথা বলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটু আগে আমাকে ফোন দিয়েছিলেন। তিনি তার স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নেন। প্রধানমন্ত্রী আমাকে বলেছেন, তাকে যদি সিঙ্গাপুরে পাঠানোর মতো হয়, তাহলে যেন দ্রুত পাঠানো হয়। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পাওয়ার পর আমি সিঙ্গাপুরে তার চিকিৎসার কাগজপত্র পাঠিয়েছি। তারা রেসপন্স করলে আমরা দ্রুত পাঠিয়ে দেবো।’

নুসরাত এবার সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা থেকে আলিম (এইচএসসি সমমান) পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। তিনি সোনাগাজীর উত্তর চরচান্দিয়া গ্রামের মাওলানা এ কে এম মুসা মানিকের মেয়ে। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে তৃতীয়। 

গত শনিবার (৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মাদরাসা ভবনের ছাদে দুর্বৃত্তরা নুসরাতের গায়ে আগুন দেয়। পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে থেকে আনা হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে।

পরিবারের অভিযোগ, মাদরাসার অধ্যক্ষ এস এম সিরাজউদ্দৌলা গত ২৭ মার্চ নুসরাত জাহানের শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। নুসরাত বিষয়টি বাসায় জানালে তার মা সোনাগাজী থানায় মামলা করেন। ওই মামলার প্রেক্ষিতে সোনাগাজী থানা পুলিশ অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলাকে গ্রেফতার করে।

এরপর মামলা প্রত্যাহারের জন্য নুসরাতকে চাপ দেয় সিরাজউদ্দৌলার লোকজন। কিন্তু নুসরাত অপারগতা প্রকাশ করেন। এ অবস্থায় আলিম পরীক্ষা শুরুর দিন থেকে ভাই নোমান নুসরাতকে পরীক্ষার হলে বসিয়ে দিয়ে আসতেন। এরইমধ্যে গেল শনিবার দুর্বৃত্তদের আগুনে ঝলসে যায় নুসরাতের শরীর।

ট্যাগ: bdnewshour24 প্রধানমন্ত্রী