banglanewspaper

বিয়ের আগেই মালদ্বীপ থেকে ছোট খাটো হানিমুন সেরে দেশে এসেছেন। আর তারপরই হঠাৎ হাসপাতালে মালাইকা অরোরা ও অর্জুন কাপুর। এ নিয়ে শোরগোল পরে গেছে বলিপাড়ায়। হঠাৎ এমন কি হলো যে তাদের হাসপাতালে যেতে হলো? অসুস্থ এমন খবরও জানা যায়নি।

তবে প্রেগন্যান্সির চেকআপ করাতে গেছেন মালাইকা? এমন প্রশ্ন করছেন অনেক ভক্ত।

ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস ও হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ১২ এপ্রিল বিকেলে মুম্বাইয়ের লীলাবতি হাসপাতালে গিয়েছিলেন মালাইকা ও অর্জুন। তবে কেন তারা হাসপাতালে গিয়েছিলেন, তা কোনো গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়নি। এই যুগলকে হাসপাতালের এমআরআই ও সিটিস্ক্যান বিভাগের প্রবেশপথ দিয়ে বেরোতে দেখা যায়। এ জুটিকে দেখামাত্রই আলোকচিত্রীরা ছবি তুলতে শুরু করেন।

সাদা প্যান্ট ও হালকা গোলাপি টি-শার্টে ছিলেন মালাইকা। আর অর্জুন সাদা টি-শার্ট ও কালো প্যান্ট পরেছিলেন। কিন্তু হাসপাতাল থেকে বেরোনোর পর মালাইকার পরনে ছিল টি-শার্টের ওপর নীল জ্যাকেট। মালাইকা ও অর্জুন কেন হাসপাতালে গিয়েছিলেন, তা এখনো অজানাই। তবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরস আলোচনা চলছে।

একজন ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘সম্ভবত তিনি (মালাইকা) অন্তঃসত্ত্বা।’ আরেকজন বিস্ময় প্রকাশ করে লিখেছেন, ‘তিনি কি অন্তঃসত্ত্বা, দুজনই যে হাসপাতালে?’ আবার এক ভক্ত তো মালাইকা ও অর্জুনের সুখী জীবনের জন্য শুভকামনাও জানিয়েছেন।

বিয়ের ব্যাপারে মুখে কুলুপ এঁটে আছেন মালাইকা ও অর্জুন। তবে মালাইকা বারবার বলেন, সবই গণমাধ্যমের তৈরি। গণমাধ্যমই এর জন্য দায়ী। তবে অর্জুন কাপুরের সঙ্গে ভালোবাসার কথা কিন্তু অস্বীকার করেননি মালাইকা।

আর ভালোবাসার সম্পর্কের পরিণতি চিরস্থায়ী করতে ১৯ এপ্রিল বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন তারা।

২০১৭ সালে মালাইকা অরোরা ও সালমান খানের ভাই আরবাজ খান ১৮ বছরের দীর্ঘ সংসারজীবনের ইতি টানেন। মালাইকা অরোরার সঙ্গে আরবাজ খানের বিয়ে ভাঙার অন্যতম কারণ অর্জুন কাপুর, এমনটাই মনে করেন অনেকে। আরবাজ খানের সঙ্গে দাম্পত্যের সম্পর্কে থাকার সময়ই নাকি অর্জুন কাপুরের সঙ্গে পরকীয়া শুরু হয় মালাইকার।

সেই ঘটনার পরিণতিতে আরবাজ আর মালাইকার বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে। তবে এরপর দুজনই নতুন জীবনে প্রবেশ করেন। মালাইকা খুঁজে পান অর্জুনকে। আর আরবাজ খানও খুঁজে পেয়েছেন নতুন সঙ্গী। ইতালির মডেল, অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী জর্জিয়া আন্দ্রিয়ানির সঙ্গে সম্পর্ক তার।

ট্যাগ: bdnewshour24 বিয়ে হাসপাতাল মালাইকা অর্জুন