banglanewspaper

চট্টগ্রামে পহেলা বৈশাখের দিন বেড়াতে নিয়ে গিয়ে প্রেমিকাকে(১৫)গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। রোববার দুপুরে পটিয়ার একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে ওই কিশোরীর প্রেমিক ও তার বন্ধু মিলে তাকে ধর্ষণ করে।

তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

ধর্ষণের শিকার কিশোরীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ওই কিশোরী পটিয়ার একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। ওই কারখানার গাড়ি চালক রিপনের সঙ্গে কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পহেলা বৈশাখে ছুটি থাকায় তারা দুজন ঘুরতে বের হয়। পরে রিপন কৌশলে মেয়েটিকে পটিয়ার একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে যায়।

সেখানে রিপনসহ তিনজন মিলে কিশোরীকে ধর্ষণ করে। পরে সন্ধ্যা ছয়টার দিকে একজন অটোরিকশা চালক মেয়েটিকে অজ্ঞান অবস্থায় প্রথমে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়।

পটিয়া হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. বাবলু দাশ জানান, ধারণা করা হচ্ছে, দুই থেকে তিনজন মিলে ওই কিশোরীকে ধর্ষণের ফলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় পটিয়া সরকারি মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে এলে অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে তাকে দ্রুত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

চমেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক আমির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 পহেলা বৈশাখ