banglanewspaper

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে গ্রেফতার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থী ফরহাদ হোসাইন ফাহাদের জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুদিনের রিমান্ড শেষ তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতোয়ালি থানার থানার উপ-পরিদর্শক রুবেল খান।

অন্যদিকে তার আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মিল্লাত হোসেন তার জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

কোতোয়ালি থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক হেলাল উদ্দিন বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে শুক্রবার রাজধানীর কোতোয়ালি থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

১১ এপ্রিল রাতে অভিযান চালিয়ে কোতোয়ালি থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

ফেসবুকে অপমানজনক পোস্ট ও মন্তব্য প্রকাশ করার জন্য গত ৮ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী নূর-ই-আলম ফরহাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ফরহাদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ১৩তম ব্যাচের ছাত্র। ক্যাম্পাস পরিচয়পত্র নম্বর (বি ১৭০১০১০৩৬)। গত ৩ এপ্রিল সময় টেলিভিশনের অনলাইনে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে কটূক্তি করলে ব্রুনাইতে মৃত্যুদণ্ড-সংক্রান্ত একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এই নিউজে জবি শিক্ষার্থী ফরহাদ কমেন্ট করেন। এতে তিনি বলেন, ‘মহানবী যে অন্যান্য ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করেছিল এবং অনুভূতিতে আঘাত দিয়েছিল সেটার বিচার কে করবে?’

এছাড়া গত ১৮ মার্চ ইসলাম ধর্ম এবং ফেরেশতাদের ব্যঙ্গ করে একটি পোস্ট দেন ফাহাদ। তার ওই পোস্টে বিভিন্ন আইডি থেকে কমেন্ট আসলে তাদের সঙ্গে তিনি অসৌজন্যমূলক কথাবার্তা বলেন। তাছাড়াও বিভিন্ন সময়ে তিনি ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করে ফেসবুকে পোস্ট দিতেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ফাহাদের ‘ফাঁসির’দাবিতে কয়েক দিন ধরে ক্যাম্পাসে মিছিল-সমাবেশ করে আসছিলেন জবির সাধারণ ছাত্ররা।

ট্যাগ: bdnewshour24 কারাগার