banglanewspaper

জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই আগামী রোববার (২১ এপ্রিল) পবিত্র শবে বরাত অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বিকেলে চাঁদ দেখা বিষয়ে গঠিত বিশেষ কমিটির সদস্যদের সুপারিশের ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ সচিবালয়ে নিজ দফতরে এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেন, চাঁদ দেখা নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছিল। ৬ এপ্রিল চাঁদ দেখা গিয়েছিল বলে দাবি করেছিল একটি মহল। তারা কোথায় চাঁদ দেখেছে, তাদের সে বিষয়ে তথ্য দিতে বলা হয়েছিল। তাদের আসতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তারা আসেননি। ফলে তাদের দাবির সপক্ষে কোনো প্রমাণ আমরা পাইনি।

তিমন্ত্রী আরও বলেন, এগুলো স্পর্শকাতর বিষয়। এগুলো নিয়ে জটিলতা তৈরি না করাই ভালো। চাঁদ দেখা কমিটি ২১ এপ্রিল শবে বরাত পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সেই অনুযায়ী ২১ তারিখেই শবে বরাত পালিত হবে।

এ সময় চাঁদ দেখা বিষয়ট জটিলতা নিরসনে গঠিত কমিটির প্রধান মুফতি মোহাম্মদ আবুল কাশেমসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

গত ৬ এপ্রিল বৈঠকের পর জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি জানায়, ওই দিন দেশের কোথাও শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে ৮ এপ্রিল থেকে শাবান মাস গণনা শুরু হবে এবং ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে। এ সংক্রান্ত ঘোষণা প্রচারিত হওয়ার পর বিভিন্ন মহল থেকে দাবি করা হয়, ৬ এপ্রিলই শাবান মাসের চাঁদ দেখা গেছে। সেই হিসাবে ২০ এপ্রিল দিবাগত রাতে শবে বরাত অনুষ্ঠিত হওয়া উচিত।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ১৩ এপ্রিল চাঁদ দেখা কমিটি বিশেষ সভা আহ্বান করে। যারা চাঁদ দেখেছেন বলে দাবি করেছেন, তাদের ওই সভায় উপস্থিত হতে বলা হয়। ওই সভাতেও কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি চাঁদ দেখা কমিটি। ১৩ এপ্রিলের বৈঠকে শবে বরাতের তারিখ নির্ধারণে ১০ সদস্যের কমিটি গঠন করে দেওয়া হয়। শবে বরাত কবে পালিত হবে, তা ওই কমিটি আগামী ১৭ এপ্রিলের মধ্যে জানিয়ে দেবে বলে জানানো হয় সভা থেকে।

সভা শেষে ধর্মপ্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ বলেন, ‘পবিত্র শবে বরাত কবে হবে এটা সরকারি সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয় নয়। এটা চাপিয়ে দেওয়ারও কোনো বিষয় নয়। শরিয়তের বিধান অনুযায়ী এ বিষয়ে যারা অভিজ্ঞ, জ্ঞানী এবং পারদর্শী তাদের মতামতের ওপরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিকে, শাবান মাসের চাঁদ দেখাকে কেন্দ্র করে এই বিভ্রান্তি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। এ সংক্রান্ত বিষয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশকে গত ১৩ এপ্রিল আইনি নোটিশ পাঠান আল্লামা আবুল বাশার মোহাম্মদ রুহুল হাসানসহ ১০ জন আলেম। নোটিশের জবাব না পাওয়ায় তারা সোমবার (১৫ এপ্রিল) হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন। পরে আদালত বলেন, এটি একটি ধর্মীয় সংবেদনশীল বিষয়। একে মামলার বিষয়বস্তু না করাই ভালো। আপনাদের বক্তব্য আপাতত ইসলামিক ফাউন্ডেশনে লিখিত আকারে জমা দেন। তারা যদি আপনাদের আবেদনটি বিবেচনা না করে, তাহলে আমাদের কাছে আসবেন। তখন এ বিষয়ে আমরা ব্যবস্থা নেব।

ট্যাগ: bdnewshour24 শবে বরাত