banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধি: গাজীপুরে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় শারমিন আক্তার লিজা (১৬) নামের এক কলেজ ছাত্রীকে প্রকাশ্যে হত্যা করেছে মোস্তাকিন নামের এক যুবক। 

বুধবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ি কাঁচাবাজার এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে। 

নিহত লিজা কোনাবাড়ি আমবাগ এলাকার মোঃ সফিকের মেয়ে এবং সে স্থানীয় ক্যামব্রিজ কলেজের মানবিক বিভাগের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। 

হত্যাকারী মোস্তাকিন (১৭) একই এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে এবং সে স্থানীয় লিঙ্কন কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

ক্যামব্রিজ কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মো. জহিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, বুধবার দুপুরে বর্ষোত্তীর্ণ পরীক্ষা শেষে লিজা তার এক বান্ধবী ও সতীর্থের সঙ্গে বাসায় ফেরার পথে কোনাবাড়ি কাঁচাবাজার এলাকায় পৌঁছালে মোস্তাকিন কিছু বুঝে ওঠার আগে চাকু দিয়ে লিজার বুকে আঘাত করে। পরে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী মোস্তাকিনকে আটক করে পুলিশে দেয় এবং লিজাকে উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে ও পরে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। সেখান থেকে ঢাকার উত্তরায় বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের ভাই সাদিম আহমদ সুজন জানান, মোস্তাকিন কলেজে আসা-যাওয়ার পথে লিজাকে প্রায়ই উত্যক্ত করত এবং তাকে প্রেম ও বিয়ের প্রস্তাব দিত। এ প্রস্তাবে লিজা রাজি না হওয়ায় তাকে বিভিন্ন হুমকি দিত। 

সম্প্রতি হুমকির পর লিজা চার-পাঁচদিন ধরে কলেজে যাচ্ছিল না। বিষয়টি মোস্তাকিনের মা’কে মোবাইল ফোনে জানানোর পর দুইদিন আগে মোস্তাকিন ও তার মা বিষয়টি নিয়ে আর কোন সমস্যা করবে না বলে প্রতিশ্রুতি দেয় এবং লিজার মা-বাবার কাছে ক্ষমা চায়।

কোনাবাড়ি থানার ওসি মো: এমদাদুল হক জানান, লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তার গলার নীচে বুকে চাকুর আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। চাকুটিও উদ্ধার করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 গাজীপুর