banglanewspaper

পরিচয়ের কিছুদিনের মধ্যেই এক যুবকের সঙ্গে প্রেমে জড়ান মেক্সিকান তরুণী লিন্ডা মারফি। তবে কিছুদিনের মধ্যেই সে সম্পর্কে চিড় ধরে। পুনরায় সম্পর্ক প্রতিস্থাপনে মরিয়া লিন্ডা প্রেমিক উইলিয়াম রায়নকে টানা ফোন করতে থাকেন। রায়ান তার প্রাক্তনের ডাকে সাড়া দেননি।

কিন্তু নাছোড়বান্দা প্রেমিকা হাল ছাড়েননি। শুধু একবার কথা বলার জন্য সাবেক প্রেমিককে এক সপ্তাহে ৭৭ হাজার বার ফোন করেছেন। এমনকি রায়ানকে এসএমএস, ইমেইল, চিঠি পাঠিয়েও রেকর্ড গড়েছেন এই ২৮ বছরের এই তরুণী। শেষমেশ বিরক্ত সাবেক প্রেমিকের অভিযোগ পেয়ে গ্রেপ্তার হয়েছেন মেক্সিকোর এক তরুণী।

লিন্ডার কোনো ফোনকলেই সাড়া দেননি বিমুখ উইলিয়াম। ফোনে এভাবে বিরক্ত করার জন্য তিনি দ্বারস্থ হন পুলিশের। লিন্ডার ফোনের কল হিস্ট্রি পরীক্ষা করে পুলিশ জানতে পারে সাবেক প্রেমিককে এক সপ্তাহে ৭৭ হাজার ৬৩৯ বার ফোন করেছেন লিন্ডা।

পরিচয়ের কিছুদিনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্কে জড়ান লিন্ড ও রায়ান। কিন্তু সমস্যার কারণে সেই সম্পর্ক কয়েকদিনের মধ্যেই ভেঙে যায়। উইলিয়াম এই সম্পর্কের জের বেশিদিন টানতে চাননি। তবে লিন্ডা ব্রেকআপ হয়ে যাওয়ার কয়েকদিন পরই সম্পর্ক পুনঃস্থাপন করতে চেয়েছিলেন। সে জন্যই রায়ানকে এতবার ফোন করেন লিন্ডা।

পুলিশ বলছে, ফোনকলের পাশাপাশি সাবেক প্রেমিককে এক সপ্তাহে ইমেইল করেছেন ১ হাজার ৯৩৭ বার। ক্ষুদে বার্তা (এসএমএস) পাঠিয়েছেন ৪১ হাজার ২২৯টি। ২১৭টি ভয়েস ম্যাসেজ এবং চিঠি দিয়েছেন ৬৪৭টি।

পুলিশ অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্তে নেমে সত্যতা নিশ্চিত হয়। পরে আলবুকারিন পুলিশ ডিপার্টমেন্ট লিন্ডাকে গ্রেপ্তার করে।

লিন্ডা বলেছেন, উইলিয়ামের সঙ্গে শুধু একবার কথা বলার জন্য দিনে সবসময় ফোন করতেন তিনি। আর রাত জেগে ফোন করার জন্য বিশেষ ধরনের এনার্জি ড্রিংক ও অ্যামফেটামাইন জাতীয় ওষুধ খেতেন তিনি।

আর পুলিশ বলছে, লিন্ডা অবসেসিভ কমপালসিভ ডিজঅর্ডার নামের এক বিশেষ মানসিক রোগের শিকার। এই রোগে আক্রান্তরা মানসিক উদ্বেগে ভোগেন। আর একই কাজ বারবার করে যাওয়া থেকে নিজেকে বিরত করতে পারেন না। উইলিয়ামের সঙ্গে প্রেম ভেঙে যাওয়ার পরে লিন্ডার সেই সমস্যা আরও বৃদ্ধি পায়।

ট্যাগ: bdnewshour24 প্রেমিক