banglanewspaper

মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে এক কৃষকের জমি দখলের চেষ্টা ও খড়ের গাঁদায় অগ্নিসংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার বেলা ৮টার দিকে ২৫-৩০জনের একটি বাহিনী উত্তর কুমারিয়াজোলা গ্রামের সুনিল কবিরাজের .৩১শতক জমিতে মাটি কেটে ভেড়ি দিয়ে জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা চালায় একই এলাকার দিনেশ বাড়ই।

জমি দখলে বাঁধা দিলে সুনিল কবিরাজের স্ত্রী ঊষা রানীকে(৬০) ও পূত্রবধূ শিল্পী রানীকে(৩০) মারপিট করে আহত করে এবং হাতের শাখাও ভেঙ্গে ফেলে। বাহিনীটি একই সময় সুনিল কবিরাজের একটি খড়ের গাদায় অগ্নিসংযোগ করে বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সরেজমিনে জানা গেছে, সুনিল কবিরাজ তার বসতবাড়ি সংলগ্ন .৯৬শতক জমি কবলা সূত্রে ৬ বছর ধরে ভোগ দখল করছেন। ঘটনার দিন ওই জমির মধ্যহতে .৩১শকত জমি ভেড়ি দিয়ে দখলের চেষ্টা করে। এসময় পুড়িয়ে দেওয়া হয় একটি খড়ের গাঁদাও। 

খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনা সম্পর্কে সুনিল কবিরাজ অভিযোগের সাথে বলেন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক মজুমদার একটি পক্ষের হয়ে অবৈধভাবে জমি দখল করানোর চেষ্টা করেছে এবং পরিষদে যাওয়ার পরে তার স্ত্রী ও পুত্রবধূকে অশ্লীল ভাষায় গালি গালাজ করে পরিষদ থেকে বের করে দেয়। 

অপরদিকে দিনেশ বাড়ই বলেন, কবলা সূত্রে ক্রয় করা জমি তিনি দখলে নিয়েছেন। কোন অন্যায় করেননি। খড়ের গাঁদায় অগিগ্নসংযোগের ঘটনাটিও সাজানো বলে তিনি দবি করেন। এ বিষয়ে চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক মজুমদার বলেন, সুনিল কবিরাজের অভিযোগ সম্পূর্ণ বানোয়াট। সে ওই এলাকায় একটি খারাপ লোক। তার পরিবারও খারাপ। 

এ বিষয়ে থানার এসআই আনন্দ প্রসাদ বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। উভয়পক্ষকে কাগজপত্র নিয়ে বসার জন্য সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 মোরেলগঞ্জ