banglanewspaper

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বড় রাজনৈতিক দল বিএনপি অংশ না নেয়ায় ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। ভোটার বৃদ্ধি করা নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব নয়, কমিশন শুধু সুষ্ঠু নির্বাচন করতে ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকে। ভোটার আনা প্রার্থীদের কাজ।

মঙ্গলবার দুপর সাড়ে ১২টার দিকে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সদর উপজেলার ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সিইসি বলেন, রোহিঙ্গারা দেশে প্রবেশের পর তাদের আঙুলের ছাপ পুলিশ প্রশাসন নিয়ে রেখেছে। যে কারণে রোহিঙ্গাদের ভোটার হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। ভুল তথ্য বা আঙুলের ছাপ দিয়ে তারা ভোটার হতে পারবে না।

তিনি আরও বলেন, এখন একজন ব্যক্তি একবারই ভোটার হতে পারবেন। আগে একজন ব্যক্তি একাধিকবার ভোটার হতে পারতেন কিন্তু এখন সে সুযোগ নেই। এখন সব বায়োমেট্রিক। সুতরাং নিজের পরিচয় গোপন রেখে ভোটার হওয়ার সুযোগ নেই।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জাতীয় প্রতীক ব্যবহারের সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক, নির্বাচন কমিশনের নয়।

জেলা প্রশাসক মো. শওকত আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ফরিদপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান তালুকদার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকির আব্দুল জব্বার, পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি, সিভিল সার্জন ডা. মো. রহিম বকস, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাবিবুর রহমানসহ উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পৌর মেয়র, ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসূচি বাস্তবায়ন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 ভোটার বৃদ্ধি সিইসি