banglanewspaper

একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) আওতায় নির্ধারিত সংখ্যকের বেশি নিবন্ধন থাকা সাড়ে বিশ লাখ মোবাইল সিম নিষ্ক্রিয় করা হচ্ছে। এসব সিম বন্ধ করে দিতে দেশের সব মোবাইল অপারেটরকে নির্দেশনা দিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

আজ বৃহস্পতিবার দিবাগত মধ্যরাত (জিরো আওয়ার) থেকে এই ২০ লাখ ৫০ হাজার সিম নিষ্ক্রিয় করার কাজ শুরু হবে। পরবর্তী ৭ থেকে ৮ ঘণ্টার মধ্যে সিমগুলি আর কাজ করবে না।

বিটিআরসির নির্দেশনা অনুযায়ী, একজন ব্যক্তি তার এনআইডি দিয়ে ১৫টির বেশি নিবন্ধিত সিম রাখতে পারবে না। কিন্তু বিটিআরসি দেখেছে একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে নিবন্ধন হওয়ার সিমের সংখ্যা নির্ধারণ করে দেওয়া সংখ্যাটি ছাড়িয়ে গেছে। আর এমন সিমের সংখ্যা ২০ লাখ ৫০ হাজারের বেশি। এজন্য এসব অতিরিক্ত সিম কমিয়ে ফেলতে বিটিআরসি তৈরি করেছে ‘সেন্ট্রাল বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন মনিটরিং প্ল্যাটফর্ম’।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক জানান, নিরাপদে মোবাইল সিম ব্যবহারে এ প্রচেষ্টা আরও গ্রাহকবান্ধব হবে। এর ফলে জনসাধারণ নির্বিঘেœ উন্নত টেলিযোগাযোগ সেবা গ্রহণ করতে পারবে।

বিটিআরসির একটি সূত্র মতে, ২০ লাখ ৪৯ হাজার ৯২৭টি সিমের মধ্যে গ্রামীণফোনের চার লাখ ৬১ হাজার। বাংলালিংকের চার লাখ ৫৫ হাজার। রবির চার লাখ ১৯ হাজার। এয়ারটেলের রয়েছে দুই লাখ ২৫ হাজার। আর রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিটকের চার লাখ ৮৭ হাজার ৪৯২ সিম।

বিটিআরসির তথ্য মতে, অন্তত এক লাখ জাতীয় পরিচয়পত্রের ক্ষেত্রে সরকার নির্ধারিত নির্দেশনা মানা হয়নি। এই সংখ্যক জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে ১৫টির বেশি সিম নিবন্ধন করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 মোবাইল সিম