banglanewspaper

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণার পর সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে বাঁহাতি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েসের বাদ পড়া নিয়ে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজের সবশেষ দশ ওয়ানডে ইনিংস কিংবা গত বিশ্বকাপের পর থেকে ইমরুলের পরিসংখ্যান বাহবা দেয়ার মতোই।

শেষ ১০ ওয়ানডে ম্যাচে ইমরুলের নামের পাশে রয়েছে ৩টি ফিফটি ও ২টি সেঞ্চুরি। এছাড়া ২০১৫ সালের বিশ্বকাপের পর থেকে খেলা ২২ ইনিংসে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ১০৩৫ রান করেছেন ইমরুল। ৪৯.২৮ গড়ে এ রান করার পথে ৩টি সেঞ্চুরির সঙ্গে ৬টি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস খেলেছেন তিনি। তবু বিশ্বকাপ দলে কেনো নেই ইমরুল?

বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের কনফারেন্স হলে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে বিশ্বকাপ স্কোয়াডসহ নানান বিষয়ে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেন রোডস। যেখানে ইমরুলের কথা তোলা হলে যেনো খুশিই হন তিনি।

নিজের সহজাত ভঙ্গিমায় রোডস বলেন, ‘ইমরুলের প্রসঙ্গ আসায় আমি খুশি হয়েছি। আমরা চেষ্টা করছি বাংলাদেশ দলে সর্বোচ্চ মানের ক্রিকেটার যত বেশি সম্ভব রাখা যায় এবং গভীরতা যতো বাড়ানো যায়। এমন নয় যে ৪-৫ জন সর্বোচ্চ মানের ক্রিকেটার হলেই কাজ হয়ে যাবে। এমন ক্রিকেটাররের সংখ্যা আরো বেশি হলে আমরা ভালো অবস্থানে থাকবো। আমি মনে করি আমাদের ঘরোয়া লিগে বেশ কিছু ভালো ক্রিকেটার আছে।’

এসময় ইমরুলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের উদাহরণ টেনে রোডস বুঝিয়ে দেন ইমরুলের মতো পারফর্মার বিশ্বকাপ দলে না থাকার মানে হলো বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দলটা বেশ শক্তিশালীই হয়েছে। যে কারণে ইমরুলের মতো ক্রিকেটারকেও থাকতে হচ্ছে বাইরে।

ট্যাগ: bdnewshour24 ইমরুল