banglanewspaper

রাজধানীর উত্তরখানের একটি বাড়ি থেকে মা ও দুই সন্তানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় ঘরে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। চিরকুটে লেখা ছিল- ‘আমাদের মৃত্যুর জন্য আমাদের ভাগ্য এবং আমাদের আত্মীয়স্বজনের অবহেলা দায়ী। আমাদের মৃত্যুর পর আমাদের সম্পত্তি দান করা হোক।’

নিহতরা হলেন- মা জাহানার বেগম মুক্তা (৫০), মেয়ে তাসফিয়া সুলতানা মীম (১৮) ও ছেলে মুহিব হাসান (৩০)। তাদের বাড়ি কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলা জগন্নাথপুর গ্রামে।

রোববার রাতে উত্তরখানে মৈনারটেক এলাকার মাউসাউদ রোডের বাড়ি থেকে ওই তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উত্তরা বিভাগের উপকমিশনার নাবিদ কামাল শৈবাল জানান, রোববার রাতে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ উত্তরখানের মৈনারটেক এলাকার ওই একতলা বাসায় যায়।

তিনি বলেন, ভেতর থেকে আটকানো দরজা ভেঙে তিনজনের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। মা ও মেয়ের লাশ বিছানায় এবং ছেলের লাশ মেঝেতে পড়ে ছিল। লাশগুলো ফুলে যাওয়ায় কীভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে তা বোঝা যায়নি। তবে ওই বাড়িটির মালিক ডা. কামাল হোসেন ধানমণ্ডিতে থাকেন।

জানা যায়, প্রথম রমজানে তারা ওই বাসাটি ভাড়া নেন। তার পর ৮-৯ মে সম্ভবত এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহত নারী জাহানারা বেগমের স্বামী বেশ কিছু দিন আগে মারা গেছেন। তার ছেলে মহিব হাসান ৪০তম বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন। আর মেয়ে আতিয়া সুলতানা মীম ছিলেন প্রতিবন্ধী।

পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার হাফিজুর রহমান রিয়েল বলেন, দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকার পর ঘরের ভেতরে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। ওই পরিবারের আত্মীয়দের খুঁজে বের করার চেষ্টা করা হবে। পাশাপাশি স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে রহস্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা চলছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

ট্যাগ: bdnewshour24 মৃত্যু