banglanewspaper

কলকাতায় ভেঙে ফেলা হয়েছে মনীষী ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি। শহরের বিদ্যাসাগর কলেজে ভাঙচুর চালায় দুর্বৃত্তরা। এরই একপর্যায়ে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের আবক্ষ মূর্তিটিও গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির শোডাউনকে ঘিরে ঘটা সংঘর্ষের একপর্যায়ে ওই ঘটনা ঘটে। বিজেপির সভাপতি অমিত শাহের নেতৃত্বে ওই শোডাউন পুরো কলকাতা শহর প্রদক্ষিণ করার কথা। তবে তৃণমূল কংগ্রেসের ছাত্রদের বাধার মুখে তা থমকে যেতে বাধ্য হয়। এ নিয়ে বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়।

সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকার কলকাতা সংবাদদাতা জানিয়েছেন, ওই সংঘর্ষে উত্তর কলকাতার কলেজ স্ট্রিট ও বিধান সরণি রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

অমিত শাহের ওই শোডাউন ঘিরে বিজেপি যেমন ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়, তেমনি তৃণমূল কংগ্রেসও এর বিরোধিতা করে। বিভিন্ন এলাকায় কালো পতাকা প্রদর্শন করে দলটির নেতাকর্মীরা।

তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, বিজেপির নেতাকর্মীরা বিদ্যাসাগর কলেজে ঢুকে ওই হামলা চালায়। এদিকে বিজেপির দাবি, কলেজের ভেতর থেকেই অমিত শাহের শোডাউন লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়া হয়।

জানা যায়, অমিত শাহের গাড়িবহর এলাকা ছাড়ার পরই বিদ্যাসাগর কলেজে ঢুকে পড়ে বিজেপির কর্মীরা। সেখানেই দুপক্ষে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে কলেজে ব্যাপক ভাঙচুর হয়। এরই একপর্যায়ে কলেজে রাখা ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তিটি ভেঙে ফেলে দুর্বৃত্তরা।

সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, অত্যন্ত কড়া ভাষায় ওই ঘটনার সমালোচনা করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, ‘ওই হামলা বাংলার লজ্জা। এর কোনো ক্ষমা নেই।’ তিনি আরো বলেন, ‘বাংলার মানুষ হয়ে আমরা ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরকে সম্মান দিতে পারি না বিজেপির গুণ্ডাদের জন্য।’

ট্যাগ: bdnewshour24 বিজেপি তৃণমূল বিদ্যাসাগর