banglanewspaper

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলামের হৃদপিন্ডে অস্ত্রোপচার (বাইপাস সার্জারি) হয়েছে। চার দিন আগে থাইল্যান্ডের ব্যাংককে একটি হাসপাতালে তার দেহে এই অস্ত্রোপচার হয়। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।

মন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ একজন বলেন, থাইল্যান্ডে নিয়মিত চেকআপের জন্য গেলে তার হৃদপিণ্ডে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে। চিকিৎসকদের পরামর্শে তিনি বাইপাস সার্জারি করান। তিনদিন পর মঙ্গলবার তাকে কেবিনে দেওয়া হয়েছে। থাইল্যান্ডে মন্ত্রীর সঙ্গে তার স্ত্রী রয়েছেন। গত ২৭ এপ্রিল তিনি থাইল্যান্ডের ব্যাংককে যান। প্রথমে তিনদিনের ছুটি নিয়েছিলেন। পরে ২২ মে পর্যন্ত ছুটি বাড়িয়ে নেন।

এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর এত লম্বা সফর নিয়ে আলোচনা ছিল। তিনি অসুস্থ কি-না, এমন গুঞ্জন থাকলেও মন্ত্রণালয় তরফে কিছু জানা যায়নি।

এর আগে এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য বলেন, ‘মন্ত্রীর সঙ্গে যোগযোগ হয়েছে। তিনি ও তার স্ত্রী দুজনেই মেডিকেল চেকআপ করিয়ে ২২ মে দেশে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন।’

জানতে চাইলে এলজিআরডি মন্ত্রীর একান্ত সচিব মোহাম্মদ নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, ‘স্যারের হার্টের ট্রিটম্যান্ট হচ্ছে জানি। বাইপাস হয়েছে কি না জানি না।’

সম্প্রতি সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি হয়েছে। সিঙ্গাপুরে অপারেশন শেষে তিনি অনেকটাই সুস্থ।

ট্যাগ: bdnewshour24 এলজিআরডি মন্ত্রী বাইপাস সার্জারি