banglanewspaper

রাজধানীর মালিবাগে পুলিশের গাড়িতে হামলার ঘটনায় বিস্ফোরক ও সন্ত্রাস দমন আইনে অজ্ঞাতদের আসামি করে পল্টন থানায় একটি মামলা করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৭ মে) দুপুরে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পল্টন থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাইদুল ইসলাম।

মাইদুল ইসলাম বলেন, ‘পুলিশ সদস্য শফিকুল চৌধুরী বাদী হয়ে বিস্ফোরক ও সন্ত্রাস দমন আইনে অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।’

রবিবার (২৬ মে) রাত সাড়ে ৯টার দিকে মালিবাগে পুলিশ ভ্যানে ককটেল বিস্ফোরিত হয়। এ বিস্ফোরণে ওই রিকশা চালক ও পুলিশ সদস্যসহ তিনজন আহত হন।

এদিকে এ ঘটনায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ‘পুলিশ ভ্যানে বিস্ফোরিত ককটেলটি সাধারণ ককটেল নয়। এটি সাধারণ ককটেলের চাইতে অনেক শক্তিশালী। জনমনে ভীতি, নৈরাজ্য, অরাজকতা সৃষ্টি করার জন্য কোনো গোষ্ঠী এটি করতে পারে। জঙ্গি সম্পৃক্ততা আছে কি না তা এই মুহূর্তে বলা যাবে না।’

তিনি বলেন, ‘কাউন্টার টেরোরিজম, ডিবি, সিআইডি ঘটনাস্থলের বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে। এটি কী ধরনের বিস্ফোরক তা কাউন্টার টেররিজমের বোম ডিসপোজাল ইউনিট খতিয়ে দেখছে। এটি পুলিশকে টার্গেট করা হয়েছে, নাকি অন্য কোনো লক্ষে করা হয়েছে তাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। কী উদ্দেশ্যে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে সেটাও আমরা তদন্ত করছি।’

কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলা সম্ভব হচ্ছে না। বিস্ফোরকটি ছুড়ে মারা হয়েছে, নাকি আগে থেকে প্ল্যান করে রাখা হয়েছিল। তা জানতে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট কাজ করছে। তারা পরে বলতে পারবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখানে পাশেই রয়েছে এসবি অফিস ও সিআইডি অফিস। এই মোড়ে সবসময় পুলিশের গাড়ি স্ট্যান্ডবাই থাকে। তাই বিষয়টি নাশকতার উদ্দেশ্যে হয়েছে কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’

ট্যাগ: bdnewshour24