banglanewspaper

ডিম বহনে বেশিই সাবধানী হতে হয়, একটু এদিক-সেদিক হলেই ভেঙে যাবে। অথচ পড়ে ভাঙা তো দূরের কথা, হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়েও ভাঙা যাচ্ছে না ডিম! ভারত অধ্যুষিত কাশ্মীরের সিয়াচেনে এ ঘটনাই ঘটেছে।

বরফাচ্ছাদিত ওই পর্বতাঞ্চলে তাপমাত্রা এতটাই কম যে, এতে ডিম জমে অনেকটা পাথরে পরিণত হয়েছে। সম্প্রতি টুইটারে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

যেখানে ডিম হাতে ভারতীয় এক জওয়ানকে বলতে দেখা যায়, ‘হাতুড়ি দিয়ে পেটালেও এই ডিম ভাঙবে না।’ অপর এক জওয়ান ফলের রসের টেট্রা প্যাক খুলে দেখছেন, পুরোটাই জমে বরফ হয়ে গেছে! আলু, টমেটো, পেঁয়াজ বা আদাও পাথরের মতো শক্ত হয়ে গেছে। এক জওয়ান সেগুলো কাটার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে হাতুড়ি দিয়ে পেটান। এতেও কোনো লাভ হয়নি।

এক জওয়ান বলেন, ‘এখানকার পরিস্থিতিতে জীবনধারণ মোটেই সহজ নয়। তাপমাত্রা প্রায়ই মাইনাস ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি নেমে যায়।’ সিয়াচেনে জীবনধারণের প্রাথমিক সরঞ্জাম পৌঁছনো বেশ কষ্টসাধ্য। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে কপিকলের সাহায্যে পৌঁছনো হয়। শীতকালে বরফে রাস্তা বন্ধ হলে ব্যবহার করা হয় ‘লাইট চিতা হেলিকপ্টার’। আনন্দবাজার পত্রিকা।

ট্যাগ: bdnewshour24 ঠাণ্ডা ডিম পাথর