banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিবেদক: ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আরিফ সাত্তার স্মরণে শোকসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ধানমন্ডি ক্যাম্পাস অডিটোরিয়ামে এ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরীর সভাপতিত্বে মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর এম নুরুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মোর্শেদা চৌধুরী। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার, প্রক্টর, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, ডিন, উপদেষ্টা, সকল বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

আরিফের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড ইউনির্ভাসিটি পরিবার। তার মৃত্যুতে শোকে মুহ্যমান কর্মকর্তা-কর্মচারি ও শিক্ষার্থীরা। কালো ব্যাচ ধারণ, দোয়া মিলাদ মাহফিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে তাকে স্মরণ করা হয়।

গত শনিবার (৮জুন) বেলা এগারোটার দিকে শারিরিক অসুস্থতা বোধ করলে আরিফ সাত্তারকে রাজধানীর ইস্কাটনের হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১০টায় তার মৃত্যু হয়। রোববার জুরাইন করবস্থানে তাকে দাফন করা হয়। আরিফ সাত্তার ওয়ার্ল্ড ইউনির্ভাসিটির বেসিক সাইন্স বিভাগের প্রধান ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী বলেন, 'আরিফ সাত্তারকে হারিয়ে আমি শোকে বিমোহিত। তাকে বিশবছর ধরে দেখেছি। তার ভুমিকা শুধু শিক্ষক হিসেবে ছিল না, সে একজন গবেষক ছিল। সেবামূলক কাজেও তার বিচরণ ছিল।'

'প্রতিটা পদক্ষেপ আমরা তাকে স্বরণ করব। তার নামে একটা স্কলারশিপ চালু করা হবে। যেটা পরিসংখ্যান বিষয়ে সর্বোচ্চ নম্বরধারী এই স্কলারশিপ পাবে।'

উপাচার্য বলেন, 'আমরা তার বিকল্প কাউকে পাবো বলে মনে করি না। তার জন্য সবাই দোয়া করবেন।'

দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদের পেশ ইমাম ড. এমাজ উদ্দিন।

প্রসঙ্গত, মোহাম্মদ আরিফ সাত্তার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগ থেকে এমএসসি করেন। ১৯৯৯ সাল থেকে তিনি ডেটা ম্যানেজার-কো-স্ট্যাটিশিয়ান হিসাবে কাজ করছেন। এছাড়া প্রজনন, মৃত্যু, স্বাস্থ্য ও পুষ্টি ও জনসংখ্যা প্রজেক্ট সম্পর্কিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক স্পনসর প্রকল্পে কাজ করেছেন। গাস (GUS), ফ্রাইপড (FREPD), দুর্যোগ ব্যবস্থাপনাসহ বিভিন্ন গবেষণায় প্রশিক্ষক হিসাবে তিনি কাজ করেছেন।

এছাড়া দেশ বিদেশে সেমিনার ও সম্মেলন অংশগ্রহণ করেছেন। তাঁর গবেষণার অনেক লেখা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিল।

ট্যাগ: bdnewshour24 ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি সহযোগী অধ্যাপক আরিফ সাত্তার