banglanewspaper

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ফুলপুরে নিখোঁজ যমজ তিন বোনের দুইজন সুমা ও চম্পা ছোট বোন পপিকে সঙ্গে নিয়ে তাদের প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছিলো বলে জানিয়েছে পুলিশ। একইসঙ্গে এ ঘটনায় কথিত দুই প্রেমিক মুন্না মিয়া ও মাসুদ রানাসহ ছয়জনকে আটক করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) শাহ আবিদ হোসেন।

পুলিশ সুপার বলেন, মূলত পরিবারের প্রতি অভিমান করে ছোট বোন পপিকে সঙ্গে নিয়ে সুমা ও চম্পা তাদের প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যায়। পরে তারা শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলায় একটি বাড়িতে অবস্থান করে। এ ঘটনায় তাদের বাবা আব্দুর রহমান বাদী হয়ে ফুলপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন এবং অপহরণ আইনে মামলা দায়ের করেন।

পরে জেলা ডিবি ও থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে সোমবার বিকেলে শেরপুর থেকে ফেরার পথে প্রথমে উদ্ধার করা হয় ছোট বোন পপিকে। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে মঙ্গলবার রাতে আরো দুইবোনকে ঢাকা থেকে উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার করা তিন বোনকে পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। আসামিরা সকলেই শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতি উপজেলার। যমজ তিন বোন ভাইটকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী

এর আগে গত ১৪ জুন রাতে উপজেলার ভাইটকান্দি দক্ষিণ পাড়া এলাকার নিজ বাড়ি থেকে ‘রহস্যজনক’ভাবে নিখোঁজ হন যমজ তিনবোন।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্তি পুলিশ সুপার জয়িতা শিল্পী (প্রশাসন), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল আমিন (সদর সার্কেল) ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ শাহ কামাল আকন্দসহ উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 প্রেমিক