banglanewspaper

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে আপত্তিকর সম্পর্কে জড়ানোর দায়ে চাচি-ভাতিজার কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার বিকেলে বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়ামিন হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাদণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- উপজেলার সুজালপুর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে ও দুই সন্তানের জনক আবু নাইম ও তার চাচি একই গ্রামের মিনারুল ইসলামের স্ত্রী এবং তিন কন্যা সন্তানের জননী সাবিনা ইয়াসমিন। চাচি সাবিনা ইয়াসমিনকে এক মাসের কারাদণ্ড ও ভাতিজা আবু নাঈমকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাকিলা পারভীন জানান, তিনদিন আগে আবু নাঈম তার চাচি সাবিনা ইয়াসমিনকে নিয়ে পালিয়ে যান। এরপর থেকে দুজন বীরগঞ্জ পৌর এলাকার শান্তিবাগ বাবুর বাড়ি ভাড়া নিয়ে বসবাস শুরু করেন। স্থানীয়রা দুজনকে দেখে সন্দেহ হলে পুলিশে খবর দেন। পরে তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা পালিয়ে আসার কথা স্বীকার করেন।

৫নং সুজালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহেশ চন্দ্র রায় বলেন, আটক ভাতিজা আবু নাঈম ও চাচি সাবিনা ইয়াসমিনকে সুজালপুর ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে আসে পুলিশ। পরে উভয় পক্ষের অভিভাবকদের ডাকা হয়। বৈঠকের পরও অভিভাবকরা কোনো সমাধান করতে না পারায় তাদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে চাচি-ভাতিজাকে কারাদণ্ড দেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 কারাদণ্ড