banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ ৬% উৎকোচ না দিলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিলে সই না দিয়ে উল্টো তাদেরকে হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার  হিসাব রক্ষন অফিসের অডিটর মাজহারুল আনোয়ারের  বিরুদ্ধে। 

২৭ জুন বৃহস্পতিবার উপজেলা হিসাব রক্ষন অফিসে এ ঘটনা ঘটে।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগ একটি বাড়ী একটি খামার (আমার আমার বাড়ী আমার খামার)- প্রকল্পের শ্রীপুর উপজেলার  সমন্বয় কারী সৈয়দ ইকবাল কবিরকে এমন হুমকি দেয়া হয়েছে বলে জানা যায়। এবিষয়ে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

প্রকল্পের সমন্বয়কারী সৈয়দ ইকবাল কবির তার লিখিত অভিযোগে জানান, গত ১৯ জুন আমার বেতনসহ ১জন ফিল্ড সুপারভাইজার, ১৪ জন সহকারী ফিল্ড সুপারভাইজার ও ১জন অফিস সহায়কসহ ১৭ জনের ২৯৩০৩৫ টাকার একটি বিলের জন্য হিসাব রক্ষন অফিসে যোগাযোগ করা হয়। কিছু বিল পাশ হলেও বাকি গুলো দেয়া হয়নি।

এর সাথে কেন্দ্রীয় ভাবে অফিসে প্রদত্ত একটি ল্যাপটপ বাবদ ৫০হাজার টাকার বিলও ছিল। ৯দিন পেরিয়ে গেলেও এ অফিসের অডিটর মাজহারুল আনোয়ার বিলে তার সই ও রেজিস্ট্রার খাতায় নাম্বার দেয়নি। আজকে তার সাথে যোগাযোগ করা হলে সে ৬% উৎকোচ দাবি করে।

পরে ফোন দিয়ে আমাকে বলে, "তোর মত প্রকল্প অফিসারকে পান্তা ভাত দিয়ে খেয়ে ফেলবো"।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ওই হিসাব রক্ষন অফিসের অডিটটর মাজহারুল আনোয়ার বলেন, আমি রাগের মাথায় এগুলো বলে ফেলেছি। তার জন্য দুঃখিত। পরে তিনি সংবাদকর্মীকে টাকা দিয়ে ম্যানেজ করতে চেষ্টা করেন।

উপজেলা হিসাবরক্ষন কর্মকর্তা আব্দুল বাতেন মুঠোফোনে জানান, ‘বিষয় সম্পর্কে একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্পের সমন্বয়ক আমাকে জানিয়েছে। আমি মাজহারুল আনোয়ারকে ধমক দিয়েছি। তবে, একজন কর্মকর্তার কাছে ঘুষ দাবী করীর শাস্তি শুধুই কি ধমক কিনা এমন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি তিনি।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ফাতেমাতুজ জোহরা জানান, ‘এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে যথাযথ আইনী প্রক্রিয়া গ্রহন করা হবে।’

ট্যাগ: bdnewshour24 উৎকোচ দাবি পান্তা ভাত