banglanewspaper

সাতক্ষীরা রেঞ্জের সুন্দরবনের পশ্চিম এলাকায় বনদস্যুদের তৎপরতা আবারও বৃদ্ধি পেয়েছে। বুধবার মধ্যরাতে তিনটি নৌকাসহ সাত জেলেকে অপহরণ করেছে বনদস্যুরা। সুন্দরবনের মামুন্দো নদীর ছোট বৈকারী এলাকা থেকে তাদের অপহরণ করা হয়।

অপহৃতরা হলেন, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার পার্শ্বেখালী গ্রামের নওশের আলীর ছেলে মোবারক আলী, ধনাগাজীর ছেলে আব্দুল আলিম, বড় ভেটখালী গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে আলম, আজগার আলীর ছেলে আলম, আক্তারের ছেলে নূর ইসলাম, নূর ইসলামের ছেলে কামরুল ইসলাম ও মীরগাং গ্রামের জব্বার গাজীর ছেলে ইউনুস আলী।

এদিকে দেড় মাস আগে জনাব বাহিনী কালিঞ্চী গ্রামের সাগর মুন্ডার ছেলে ভাগ্য মুন্ডাকে অপহরণ করে ২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মুক্তিপণের টাকা দিতে না পারায় তার আর কোনো খোঁজ মেলেনি।

জনাব বাহিনীর হাত থেকে ফিরে আসা জেলে পার্শ্বেখালী গ্রামের আলিম জানান, দস্যু বাহিনীগুলো মোবাইলে জেলেদের বাড়িতে যোগাযোগ এবং বিকাশের মাধ্যমে মুক্তিপণের টাকা সংগ্রহ করে থাকে। সার্বিক বিষয়গুলো নৌ-পুলিশ ও কোস্টগার্ড অবহিত থাকলেও কোনো ধরনের উদ্ধার তৎপরতা দেখা যায় না।

অপহরণের বিষয়ে শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী কোস্টগার্ডের পেটি অফিসার আব্দুল হান্নান বলেন, বুধবার মধ্যরাতে জেলে অপহরণের বিষয়টি শুনেছি। আমরা উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রেখেছি।

ট্যাগ: bdnewshour24 সুন্দরবন অপহরণ