banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরের শ্রীপুরে এক নারী পোশাককর্মীর মরদেহ  উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ 

মঙ্গলবার (৯ জুলাই)  সকালে উপজেলার রাজাবাড়ী ইউনিয়নের ধলাদিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত লাবনী আক্তার (১৯) ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল থানার মোয়াজ্জেমপুর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার মেয়ে। এ ঘটনার পর থেকে স্বামী মামুন (২৫) পলাতক রয়েছে। সে নান্দাইলের চারিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

সুমনা আক্তার নামের নিহতের  পাশের কক্ষের ভাড়াটিয়ার বরাত দিয়ে শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আমিনুল ইসলাম জানান, লাবনী  স্থানীয়  গ্লোভ এন্ড গ্লোভস (মুজা) কারখানার শ্রমিক ছিলেন। স্বামী মামুনকে নিয়ে ধলাদিয়া মধ্যপাড়া সাইফুল ইসলামের বাড়িতে ভাড়া থাকতো। পারিবারিক কলহের জেরে প্রায় সময়ই ঝগড়া হতো তাদের মধ্যে। গতকালও বেতনের টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব হয়েছিল। প্রতিদিন সকালে লাবনী আক্তার রান্না করতে উঠতো, তবে আজ সকালে না উঠলে তিনি ডাকতে আসলে রুমে তালা ঝুলতে দেখেন। পরে বাড়িওয়ালাকে খরব দিলে তিনি স্থানীয় মেম্বার আব্দুল কাদিরকে সাথে নিয়ে থানায় খবর দেন।

খবর পেয়ে  পুলিশ নিহতের বসতঘর থেকে মরদেহ উদ্ধার করেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, লাবনীর  স্বামী তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়েছে। 

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  লিয়াকত আলী জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরে শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, রাতের কোন এক সময় গলায় গামছা দিয়ে শ্বাসরোধ করে তাকে মারা হয়েছে।

তিনি জানান, ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত বলা যাবে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর