banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় গলাকাটা গুজবে কান না দেয়ার আহবান জানালেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ শামসুল আরেফিন। 

গলাকাটা বা মাথা কাটা এটা একটা গুজব মাত্র। এর জন্য আতংকিত না হতে  স্কুল ও কলেজের ছাত্র-ছাত্রীর অভিভাবকদেরকে আহবান জানান তিনি।

জানা যায়, ১০ জুলাই পৌর এলাকার মাওনা চৌরাস্তা হতে স্কুল ছাত্রী অপহরণের খবর ছড়িয়ে গেলে বৃহস্পতিবার উপজেলার  অনেক স্কুলের অভিভাবকদের মাঝে এমন আতংক দেখা যায়। 

বিষয়টি হাস্যকর হলেও অভিভাবকরা নাকি শুনেছে যে, কোন সেতু বানাতে মানুষের মাথা লাগবে!। ফ্যাগ ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে এমন ভূয়া খবর দেয়া হচ্ছে। যা সম্পুর্ন ভূয়া,মিথ্যা ও বানোয়াট। এগুলো গুজব ছড়িয়ে দেয়ার অপরাধে অন্যান্য জেলায় ইতিমধ্যে কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

শ্রীপুর পৌর এলাকার মোহাম্মদ আলী একাডেমির ৬ষ্ট শ্রেনীর এক ছাত্রীর মা ওই স্কুলের প্রধানকে ফোন দিয়ে জানায়, স্কুল ছুটি হলে আমি না আসা পর্যন্ত মেয়ে যেন স্কুল হতে বেরুতে না দেয়া হয়। কারন জানতে চাইলে তিনি জানান,সারা দেশে গলাকাটা ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের নাকি ধরে নিয়ে যাচ্ছে।

অন্য আরেকজন অভিভাবক জানান, বস্তায় ভরে শিশুদের পাচার করে নিয়ে যাওয়ার সময়  চিৎকার দেয়ার ভিডিও ফেসবুকে দেখছি। এখন আমরা ছেলে-মেয়েদের বাইরে দিতে চিন্তিত হচ্ছি।

শ্রীপুরের মোহাম্মদ আলী একাডেমির পরিচালক ও প্রধান শিক্ষক রেজানুর রহমান জানান,  গত কয়েকদিন যাবৎ অভিভাবকদের মধ্যে এমন ভ্রান্ত ধারনা দেখা দিয়েছে। স্কুলে ছাত্র-ছাত্রীদের উপস্থিতিও কম লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এসব গুজব ছড়ানো ব্যক্তিদের আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ শামসুল আরেফিন জানান,  সেতু বানাতে মানুষের মাথা লাগবে এমন কুসংস্কার বিশ্বাস করার কোন সুযোগ নাই। সেতু মন্ত্রণালয় জরুরী প্রচারনার মাধ্যমে এমন গুজবের বিষয়ে সচেতনতামূলক প্রদক্ষেপ গ্রহন করেছে। 

ইতমধ্যে এমন গুজব ছড়ানো ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তাই এসব মিথ্যা গুজবে কান না দেয়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান রইল।

ট্যাগ: bdnewshour24 গলাকাটা গুজব শ্রীপুর