banglanewspaper

নারীঘটিত কেলেঙ্কারি যেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পিছুই ছাড়ছে না। তবে সর্বশেষ ঘটনার কেন্দ্রে অবশ্য তিনি নন, তাঁর একসময়ের বন্ধু বিরাট ধনী জেফ্রি এপস্টিন।

কিশোরীদের সঙ্গে অর্থের বিনিময়ে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগে এপস্টিন এখন কারাগারে। আর তার ধনী বন্ধুদের একজন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

অভিযোগ উঠেছে, কিশোরীদের নিয়ে যেসব সেক্স পার্টি দিতেন এপস্টিন, তার একজন নিয়মিত সদস্য ছিলেন ট্রাম্প। ১৯৯২ সালে এমন একটি পার্টিতে মোট ২৮ জন কিশোরীকে জড়ো করা হয়েছিল, তাতে উপস্থিত ছিলেন মোটে দুজন - এপস্টিন ও ট্রাম্প।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অবশ্য এখন বলছেন এপস্টিনকে তিনি তেমন একটা চেনেন না। ফ্লোরিডার পাম বিচে সবাই তাঁকে যেমন চিনত, তিনিও তেমনি চিনতেন। গত ১৫ বছরে তার সঙ্গে এপস্টিনের কোনো যোগাযোগ নেই। 

‘নিউইয়র্ক টাইমস’ খোঁজ নিয়ে জেনেছে খুব একটা ভুলও বলেন নি ট্রাম্প। একসঙ্গে ব্যবসা করার সময় টাকা-পয়সার ঝামেলা হওয়ায় দুজনের মুখ দেখাদেখি বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। 

তবে, ২০০২ সালে যখন তারা বন্ধু ছিলেন, তখন ট্রাম্প মন্তব্য করেছিলেন, ‘এপস্টিন একজন চমৎকার মানুষ এবং খুবই মজার মানুষ। লোকে বলে, আমার মতো ওর কম বয়সী সুন্দরী মেয়েদের ব্যাপারে বিশেষ আকর্ষণ রয়েছে।’

ট্রাম্পের জীবনীকার হিসেবে পরিচিতি পাওয়া সাংবাদিক ও লেখক মাইকেল গ্রস জানিয়েছেন, নব্বইয়ের দশকে ট্রাম্প ঘরভর্তি মেয়েদের নিয়ে তার ধনী বন্ধুদের জন্য পার্টি দিতেন। এসব মেয়ের অধিকাংশই মডেল হওয়ার জন্য ট্রাম্পের শরণাপন্ন হতো।

মাইকেল গ্রস আরো জানিয়েছেন, এসব পার্টিতে কোকেনের ব্যবহার হতো দেদার, আর সেখানে ট্রাম্পের ব্যবহার ছিল ‘একজন পশুর মতো’।

এদিকে, এপস্টিন নিয়ে যখন পত্রপত্রিকায় তুমুল হট্টগোল, তখন আরেক কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়েছে ট্রাম্পের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। ফ্লোরিডার ডোরালে ট্রাম্পের যে গলফ ক্লাব রয়েছে, সেখানে এক নুড ক্লাবের উদ্যোগে বিশেষ গলফ পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছিল, এই পার্টিতে যারা মোটা অঙ্কের চাঁদা দিয়ে গলফ খেলতে আসবেন, তারা নিজেদের পছন্দমতো স্বল্পবসনা মেয়েদের ‘ক্যাডি’ হিসেবে সঙ্গে রাখতে পারবেন। ক্যাডিদের কাজ খেলোয়াড়ের গলফ ব্যাগ বয়ে নিয়ে যাওয়া।

এই খবর প্রকাশিত হলে ট্রাম্প ক্লাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এই পার্টি থেকে সংগৃহীত অর্থের একটি অংশ যাবে শিশুদের হয়ে কাজ করে এমন এক দাতব্য প্রতিষ্ঠানে। ক্লাবের পক্ষ থেকে সাফাই দেওয়া হয়েছিল, একটি ভালো কাজের উদ্দেশ্যেই ইউ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। 

একদিন পরেই অবশ্য সেই দাতব্য সংস্থা জানায়, শিশু ও যৌনতা- এই দুটি বিষয় কখনো একসঙ্গে যেতে পারে না। তাই তারা এই গলফ পার্টির সঙ্গে কোনোভাবে জড়িত থাকতে রাজি নয়।

বুধবার (১০ জুলাই) তীব্র সমালোচনার পর ট্রাম্পের গলফ ক্লাব পুরো আয়োজনটাই বাতিল বলে ঘোষণা করেছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 কিশোরী সেক্স পার্টি ট্রাম্প