banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধি: গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক সড়ক বাড়ইপাড়া-গোসাত্রা-মহরাবহ। বেশ কিছুদিন পূর্বে সড়কটিতে চলাচলরত সিএনজি ভাড়া হঠাৎ করেই বৃদ্ধি করা হয়।

ফলে স্থানীয় জনগণের মধ্যে চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। প্রতিবাদ করার শক্তি ম্লান হয়ে যায় জীবিকার তাগিদে;পিছুটান সংসারের অন্যান্য সদস্যদের মুখের পানে। তাই এক প্রকার বাধ্য হয়েই একটি মহলের জোর করে চাপিয়ে দেয়া বাড়তি ভাড়া দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে স্থানীয়দের।

বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। সবশেষ সিএনজি ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে এলাকাবাসী গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করেন ও প্রতিকার চেয়ে স্থানীয় সাংসদ ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বরাবরে লিখিত একটি দরখাস্ত দিয়েছেন।

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা ও সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়নের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটিতে হঠাৎ করে সিএনজি ভাড়া বৃদ্ধি ও জনগণের ভোগান্তির চিত্র তুলে ধরে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিডিনিউজ আওয়ার টুয়েন্টিফোর ডটকম এ ‘বাড়ইপাড়া-গোসাত্রা সড়ক: সিএনজি ভাড়া বৃদ্ধিতে জনগণের ক্ষোভ’ শিরোনামে গত (২৯শে জুন, শনিবার) সংবাদ প্রকাশ করা হয়।

সংবাদ প্রকাশের পর এলাকাবাসীর মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সিএনজি ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদ ও সমালোচনা করেন অনেকে।

এরই ধারাবাহিকতায় বাড়ইপাড়া-গোসাত্রা-মহরাবহ সড়কে সিএনজি ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদসহ কয়েকটি দাবি নিয়ে এলাকাবাসী ঐক্যদ্ধ হয়ে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করে এবং দাবি উত্থাপনসহ সড়কের বিভিন্ন অনিয়ম নিয়ে চলতি মাসের (০৯ই জুলাই, মঙ্গলবার) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী ও গাজীপুর-১ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট আ.ক.ম মোজাম্মেল হক বরাবর লিখিত দরখাস্ত দায়ের করেন।

এলাকাবাসী ও লিখিত দরখাস্ত সূত্রে জানা যায়, গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বাড়ইপাড়া-গোসাত্রা-মহরাবহ সড়কে মাস খানেক আগে সিএনজি ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়। এরপর গত (১০ই জুন) সড়কের চেীধুরীটেক স্ট্যান্ডে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় নিয়ে তর্কাতর্কির একপর্যায়ে সিএনজি চালক একজন যাত্রীকে মারধর করে।

এ নিয়ে পরবর্তীতে কেবল বাড়ইপাড়া থেকে মাত্র ৩ কিলোমিটারের ভাড়া ১০ টাকা থেকে ২০ টাকা নির্ধারণ করা হয় এবং বিভিন্ন সময় ভাড়াটিয়া লোকজন দিয়ে স্থানীয়দের ভয়ভীতি দেখানো হয়। এছাড়া সড়কটিতে চলাচলরত রিক্সা চলাচলে বাধা দেয়া হয়।

এছাড়া, সড়কে রিক্সা ভ্যান চলাচলের জন্য রিক্সা প্রতি ৫০০ টাকা করে ভর্তি ফি ও দৈনিক ২০ টাকা করে আদায় করছে একটি মহল। 

এলাকাবাসী যে দাবিগুলো জানিয়েছে,

১. দূরত্ব হিসেবে সিএনজির যৌক্তিক ভাড়া নির্ধারণ

২. যাত্রী হয়রানী রোধ

৩. ভাড়াটিয়া লোক দ্বারা গঠিত মালিক সমিতির কমিটি বাতিল

৪. রিক্সাসহ অন্যান্য যাত্রীবাহী যান নির্বিঘ্নে চলতে দেয়া

৫. সন্ধার পর অতিরিক্ত ভাড়া আদায় না করা

৬. বাড়ইপাড়া হতে মহরাবহ পর্যন্ত কর্মমূখী যাত্রী ও শিক্ষার্থীদের জন্য প্রত্যেক স্ট্যান্ডে পর্যাপ্ত যানের ব্যবস্থা রাখা

৭. অবৈধ চাঁদা আদায় বন্ধ করা।

গণস্বাক্ষর ও এলাকাবাসীর পক্ষে লিখিত দরখাস্তের বিষয়ে সর্বক্ষণ তদারকি করা আটাবহ ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক এম শাহরিয়ার সুজন জানান, ‘সরকারের নানা মুখী উন্নয়নের সুফল যেখানে জনগণের ভোগ করার কথা সেখানে একটি মহলের জোর করে চাপিয়ে দেয়া অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত জনগণ কখনো মেনে নেবে না। বাড়ইপাড়া-মহরাবহ সড়ক এখন আগের চেয়ে উন্নত করা হয়েছে। কিন্তু সরকারের নিয়ম অনুযায়ী ভাড়া না নিয়ে মনগড়া ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে তাদের এ গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন ও এলাকাবাসীর প্রাণের দাবিসহ মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে তারা লিখিত অভিযোগ করেছেন।’

তিনি আরো জানান, ‘মন্ত্রী মহোদয় এলাকাবাসীর গণস্বাক্ষর সম্বলিত লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করেছেন এবং সেই সাথে কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মহোদয়কে বিষয়টি তদন্ত করে দেখতে বলেছেন।’

‘আমরা আশাবাদী একটি সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে বাড়ইপাড়া-মহরাবহ সড়কে অতিরিক্ত সিএনজি ভাড়া বন্ধসহ সকল ধরণের অনিয়ম বন্ধ হয়ে যাবে বলেও তিনি জানান।’

বাড়ইপাড়া-মহরাবহ সড়কে সিএনজির ভাড়া বৃদ্ধির পরিমান নিচে দেওয়া হলো

বাড়ইপাড়া থেকে মহরাবহ পর্যন্ত সড়কের দূরত্ব ৫ কি.মির অধিক। এতে সড়ক সংস্কারের আগে যে হারে ভাড়া আদায় হতো (মাথাপিছু) বাড়ইপাড়া হইতে খোলাপাড়া, জালশুকা (প্রকাশ) ৮ টাকা ২.৩০ কি.মি।

বাড়ইপাড়া হইতে খোলাপাড়া,জালশুকা বাজার ১০ টাকা ৩ কি.মি। বাড়ইপাড়া হইতে চৌধুরীরটেক ১২ টাকা ৩.৪০ কি.মি। বাড়ইপাড়া হইতে গোসাত্রা মাঝিবাড়ি ১৫ টাকা ৪.১০ কি.মি এবং বাড়ইপাড়া হইতে মহরাবহ বাজার ২০ টাকা ৫.৭০ কি.মি।

কিন্তু ভাঙ্গাচোরা সড়ক সংস্কারের পর কতিপয় একটি মহলের চাপিয়ে দেয়া সিএনজির বৃদ্ধিকৃত ভাড়া যে হারে এখন আদায় করা হয় (মাথাপিছু) বাড়ইপাড়া হইতে খোলাপাড়া, জালশুকা (প্রকাশ) ১৩-১৮ টাকা ২.৩০ কি.মি। বাড়ইপাড়া হইতে জালশুকা বাজার ১৫-২০ টাকা ৩ কি.মি। বাড়ইপাড়া হইতে চৌধুরীর টেক ২০-২৫ টাকা ৩.৪০কি.মি। বাড়ইপাড়া হইতে গোসাত্রা মাঝিবাড়ি ২০-২৫ টাকা ৪.১০ কি.মি এবং বাড়ইপাড়া হইতে মহরাবহ বাজার ২৫-৩৫ টাকা ৫.৭০ কি.মি।

সড়ক সংস্কারের পরও সিএনজি ভাড়া এরকম অযৌক্তিক হারে বাড়ানো কখনোও কাম্য নয়। সেই সাথে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জনগণের ভোগান্তি ও সরকারের নিয়ম অনুযায়ী একটি আঞ্চলিক সড়কের সকল বিষয়গুলো পর্যালোচনা করবে এমনটাই দাবি এলাকাবাসী ও সচেতন সমাজের।

গাজীপুর জেলা পরিষদের ১নং সদস্য (শ্রীফলতলী, ঢালজোড়া, আটাবহ) হাজ্বী ফালাক উদ্দিন মৃধা জানান, বাড়ইপাড়া-গোসাত্রা-মহরাবহ সড়কে সিএনজি ভাড়া বৃদ্ধির করার প্রতিবাদে এলাকাবাসী গণস্বাক্ষর সম্বলিত একটি দরখাস্ত মন্ত্রী বরাবর দিয়েছে। বিষয়টি খুব দ্রুত সমাধান হয়ে যাবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 বাড়ইপাড়া গোসাত্রা মহরাবহ সড়ক সিএনজির ভাড়া