banglanewspaper

জাপানের কিয়োটো শহরের বিখ্যাত অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় কমপক্ষে ১০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ৩৫ জন। এছাড়া এ ঘটনায় আরো বহু মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় পুলিশ ও জরুরি বিভাগের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি।

পুলিশের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে এক ব্যক্তি কিয়োটা অ্যানিমেশন কোম্পানির স্টুডিওতে ঢুকে পড়ে এবং এর অভ্যন্তরে কিছু তরল বস্তু ছুড়ে দেয়। এরপরই সেখানে আগুন ধরে যায়।

ওই ব্যক্তি স্টুডিওতে কি ধরনের তরল নিক্ষেপ করেছিলো তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি। ইতিমধ্যে পুলিশ ওই ব্যক্তিকে আটক করেছে । তবে তার পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। জানা যায়নি তার এই কর্মকাণ্ডের পিছনের উদ্দেশ্যও। আহত ওই ব্যক্তিকেও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কিয়োটো পুলিশের এক মুখপাত্র সংবাদ সংস্থা এএফপি’কে জানান, ‘এক লোক ওই স্টুডিওর অভ্যন্তরে তরল বস্তু ছুড়ে মেরে এতে আগুন ধরিয়ে দেয়।’

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এতে গোটা তিন তলা ভবনটিতে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশ ও উদ্ধারকারী দল। ঘটনাস্থলে এখনও উদ্ধার তৎপরতা চলছে বলে জানা গেছে।

দমকল বিভাগের এক মুখপাত্র এএফপিকে জানান, ‘আমরা ওই তিন তলা ভবনের ভিতরে আটকা পড়াদের বের করে আনার চেষ্টা করছি।’

ঘটনাস্থল থেকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তারা একাধিক বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পেয়েছেন এবং পরে লোকজনকে ছুটোছুট করতে দেখেছেন। এছাড়া ওই ভবন থেকে আগুন বের হচ্ছে বলে জানিয়েছেন অন্য এক প্রত্যক্ষদর্শী।

কিয়োটা অ্যানিমেশন ‘কিওঅ্যানি’নামে বহুল পরিচিত। এখান থেকেই ‘কি-অন’ ও ‘দ্য মেলানকোলি অব হারুহি সুজুমিয়াহ’মতো জনপ্রিয় অ্যানিমেশন সিরিজ তৈরি হয়েছে।

জাপানের এই অ্যানিমেশন স্টুডিওতে আগুন লাগার খবর শুনে স্যোশাল মিডিয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করছে কিওঅ্যানির ভক্তরা। অনেকে আবার ফেসবুকে কিয়োঅ্যানি সিরিজের ছবিও পোস্ট করছেন।

সূত্র: বিবিসি

ট্যাগ: bdnewshour24 জাপান