banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সাভারের আশুলিয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় সীমানা প্রাচীর ভাংচুর ও ১০টি বিভিন্ন জাতের ফলজ ও বনজ গাছ কর্তনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় একাধিক সাধারণ ডায়েরি (জিডি) দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার। 

সম্প্রতি সাভারের আশুলিয়ার কলতাসূতী রত্নাচি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সময় ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা পালিয়ে রক্ষা পায়।

আশুলিয়া থানায় একাধিক এসব অভিযোগ দায়ের করেছেন ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্য ওই এলাকার আলাল বেপারীর ছেলে মো: শাহীন। 

অভিযুক্তরা হলো-ঢাকার আশুলিয়ার কলতাসূতী রত্নাচী এলাকার আলতাফ বেপারীর ছেলে কবির হোসেন (১৯) ও তার ভাই কহিনুর ইসলাম (২৫) এবং মৃত মোসলেম বেপারীর ছেলে আলতাফ বেপারী। এদের মধ্যে কবির হোসেন এবার বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর কনস্টেবল নিয়োগ পরীক্ষায় প্রাথমিকভাবে উত্তীর্ণ হয়েছে।

এলাকাবাসি ও ভোক্তভোগী পরিবার জানান, সাভারের কলতাসূতী রত্নাচী এলাকার আলাল বেপারীর ছেলে মো: শাহিনের সাথে একই এলাকার আলতাফ বেপারী ও তার দুই ছেলে কবির হোসেন ও কহিনূর গংদের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবৎ জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে কবির হোসেন গংরা আলাল বেপারী গংদের জমিতে বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা চালিয়ে বাড়ির সীমানা প্রাচীর ভাংচুর করে ও প্রায় ১০টি গাছ কর্তন করে। এসময় শাহীন গংরা জীবন রক্ষার্থে পালিয়ে যায়। এছাড়াও ভুক্তভোগীদের মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। 

এসব ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে শাহিনুর ইসলাম বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় পরিবারের নিরাপত্তা ও জমি রক্ষার্থে কবির হোসেন গংদের বিরুদ্ধে পৃথক চারটি সাধারণ ডায়েরি (নং-১৫৮৯ তারিখ ২১-০৪-১৮ইং, ১৭৬২ তারিখ ২৩-০৪-১৮ইং, ৮১৬ তারিখ ১৪-০৬-১৯ইং এবং ১২০৩ তারিখ ১৬-০৭-১৯ইং) দায়ের করেন। 

এলাকাবাসীর দাবি, আলতাফ বেপারীর ছেলে কবির হোসেন এবারের পুলিশ বাহীনির কনস্টেবল নিয়োগে প্রাথমিকভাবে উত্তীর্ণ হয়েছে। এখন চূড়ান্ত নিয়োগের আগে পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের পর্যায়টুক কেবল বাকি রয়েছে।

তবে যার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধ সংঘটনের অভিযোগে থানায় একাধিক সাধারণ ডায়েরি (জিডি) রয়েছে সে কিভাবে ভবিষ্যতে সাধারণ মানুষের সেবা করবে? বিষয়টি পুলিশ বাহিনীর নিয়োগ সংশ্লিষ্ট দপ্তর বিবেচনা করবেন সে দাবীও জানিয়েছেন এলাকাবাসী। 

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম জানান, ‘শাহীন বাদী হয়ে গত ১৬ জুলাই ১২০৩নং জিডি দায়ের করেন। ওই জিডির তদন্তের দায়িত্ব আমার উপর রয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ট্যাগ: bdnewshour24 আশুলিয়া