banglanewspaper

বিএনপির ঢাকা মাহানগর উত্তরের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছেন। এ ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘একটু রিলাক্সে থাকার জন্য এবং গ্রুপিং থেকে মুক্ত থাকার জন্য জাতীয় পার্টিতে এসেছি।’

আজ  সোমবার দুপুরে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী অফিসে দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের হাতে ফুল তুলে দিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন।

সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন ১৯৮৯ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত ঢাকা কলেজ ছাত্র সংসদে নির্বাচিত ক্রীড়া সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

জাপার চেয়ারম্যান জি এম কাদের মঞ্জুরকে সাদরে গ্রহণ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা সাবেক রাষ্ট্রদূত মেজর (অব.) আশরাফ-উদ-দৌলা, যুগ্ম মহাসচিব হাসিবুল ইসলাম জয়, কেন্দ্রীয় নেতা মাসুদুর রহমান চৌধুরী, আবু তৈয়ব, জাকির হোসেন খানসহ কেন্দ্রীয় নেতারা। 

সৈয়দ মঞ্জুর হোসেনের কাছে জাতীয় পার্টিতে যোগ দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আমি রাজনীতি করি বিগত ৩৩ বছর। বর্তমানে দেশে আমাদের বিএনপির রাজনীতি করার মতো কোনো অবস্থা নেই। কোনো মিছিল মিটিং ডাকলে সেটি করতে পারি না। আর নিজেদের গ্রুপিংতো আছেই। এসব গ্রুপিং ভালো লাগে না। তাই একটু রিলাক্সে থাকার জন্য এবং গ্রুপিং থেকে মুক্ত থাকার জন্য জাতীয় পার্টিতে এসেছি।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের মহানগর বিএনপি পুরোপুরি বিভক্ত। এটা দুই চার জন লোকের নিয়ন্ত্রণে। আমাদের সভাপতি থাকেন মালয়েশিয়া, সাধারণ সম্পাদক দেশে থেকেও না থাকার মতো। তার কোনো রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড নেই। আমাদের সাথে তার কোনো বনিব না নেই। আর এ অবস্থায় রাজনীতি করার কোনো স্কোপ পাচ্ছি না। নিজেও মামলা-হামলার শিকার। এসব থেকে একটু রিলাক্স পেতেই আমার জাতীয় পার্টিতে আসা। যাতে একটু নিরাপদে থেকে রাজনীতিটা করি। কারণ রাজনীতি করি একটা মহৎ উদ্দেশ্যে, মানুষের সেবা করার জন্য। আগামীতে যেন সেটা করতে পারি।’

সৈয়দ মঞ্জুর বলেন, ‘জাতীয় পার্টিতে আসার কারণ হচ্ছে বিএনপির মধ্যে যেসব গ্রুপিং সেগুলো ভালো লাগছে না। সেই জন্য নিরাপদে রাজনীতি করার জনই জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছি।’

ট্যাগ: bdnewshour24 বিএনপি জাপা