banglanewspaper

বিভ্রান্তিকর দাবি ও অসত্য তথ্য নিয়ে প্রায়শই সংবাদ শিরোনামে থাকেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফের একবার ভারতের মোদিকে নিয়ে তার দাবিতে উঠেছে বিতর্ক। এর সঙ্গেই সামনে এসেছে চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট।

মিথ্যা কথা বলা নাকি ট্রাম্পের স্বভাব। প্রতিদিন গড়ে ৬টি করে বিভ্রান্তিকর কথা বলেন তিনি। গত ২ বছরে কতবার মিথ্যা দাবি করেছেন তা জানলে চোখ কপালে উঠবে ৷

সোমবার রাতে কাশ্মীর নিয়ে ট্রাম্পের দাবিতে উত্তাল ভারতের জাতীয় রাজনীতি। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের তিন দিনের আমেরিকা সফরের প্রথম দিনেই মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক হয়। সোমবার সেই বৈঠকে কাশ্মীর সমস্যা নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতা করতে আগ্রহী বলে জানান ট্রাম্প।

ট্রাম্পের দাবি ছিল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিই এ বিষয় তাকে কয়েক সপ্তাহ আগে মধ্যস্থতার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্টের সে দাবি উড়িয়ে দিয়েছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এই খবরে বিভ্রান্তি ছড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সামনে এসেছে এক চমকপ্রক মিডিয়া রিপোর্ট।

আমেরিকার নিউজ পেপার ওয়াশিংটন পোস্ট-এ জানুয়ারি মাসে এই রিপোর্টটি প্রকাশিত হয়েছে। রিপোর্টে দাবি করা হয়, আমেরিকার রাষ্ট্রপতি হিসেবে দুই বছর কাটানোর মধ্যে ট্রাম্প মোট ৮,১৫৮ বার মিথ্যা কথা বলেছেন।

আমেরিকান সংবাদ মাধ্যমের এই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, ট্রাম্প রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর প্রথম বছরই প্রতিদিন গড়ে ৬টি বিভ্রান্তিকর দাবি করতেন। দায়িত্ব গ্রহণের দ্বিতীয় বছর আসতেই সেই পরিসংখ্যান লাফিয়ে তিন গুণ বেড়ে যায়। রিপোর্টের তথ্য বলছে, দ্বিতীয় বছরে প্রতিদিন ট্রাম্প গড়ে ১৭টা করে মিথ্যা কথা বলেছেন।

সংবাদ শিরোনামে থাকা আমেরিকান প্রেসিডেন্টের বিভ্রান্তিকর বেশ কিছু দাবির নমুনা মেলে তার টুইটে। কখনও তিনি টুইটে নাসাকে ধমকে বলেছেন, চাঁদ মঙ্গলেরই অংশ। কখনও বলেছেন কিডনির একটি বিশেষ জায়গা রয়েছে হার্টে।

সবমিলিয়ে পরিসংখ্যান বলছে দু'বছরে ট্রাম্প মোট ৮,১৫৮ বার সবাইকে মিথ্যা বলে বিভ্রান্ত করেছেন। সূত্র: নিউজ এইট্রিন

ট্যাগ: bdnewshour24 ট্রাম্প