banglanewspaper

ভূমধ্যসাগরের লিবিয়া উপকূলে অভিবাসীবোঝাই একটি নৌকা ডুবে গেছে। এতে দেড় শতাধিক অভিবাসী নিহত হয়েছেন। নৌকায় করে অবৈধ পথে সাগর পাড়ি দিয়ে লিবিয়া থেকে ইউরোপে যাওয়ার পথে পানিতে ডুবে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এপি।

এটি চলতি বছরে ভূমধ্যসাগরে একদিনে সবচেয়ে বেশি অভিবাসীর ডুবে মরার ঘটনা।

লিবিয়ার কোস্টগার্ডের মুখপাত্র আইয়ুব গাসিমের বরাত দিয়ে এপি জানায়, দুটি নৌকায় করে ইউরোপের উদ্দেশে সাগর পাড়ি দিচ্ছিলেন ৩০০ জনের মতো অভিবাসন প্রত্যাশী। লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপলির ১২০ কিলোমিটারে দূরে ভূমধ্যসাগরে নৌকা দুটি ডুবে যায়। কোস্টগার্ডের মুখপাত্র আরও জানান, এ ঘটনায় প্রায় ১৩৭ জনকে উদ্ধার করে লিবিয়া নিয়ে আসা হয়েছে।

তবে জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) আফ্রিকা এবং লিবিয়াবিষয়ক মুখপাত্র চার্লি ইয়াক্সলে জানান, নৌকাডুবির ঘটনায় প্রায় ১৪৭ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

২০১১ সালে অভ্যুত্থানে স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফি নিহত হওয়ার পর থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে আফ্রিকা ও এশিয়ার অভিবাসীদের ইউরোপে যাওয়ার রুটে পরিণত হয়েছে লিবিয়া। উন্নত জীবনের আশায় ঝুঁকি নিয়ে সাগর পাড়ি দিতে গিয়ে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। মে মাসে ভূমধ্যসাগরের তিউনিসিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ৬৫ অভিবাসীর মৃত্যু হয়, বেঁচে যান ৬০ জন।

ট্যাগ: bdnewshour24 লিবিয়া নৌকা ডুবে