banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিবেদক: উত্তরা ১৮ সেক্টরের রাজউক উত্তরা এপার্টমেন্ট মেগা প্রকল্প বিভিন্ন অনিয়মের কারণে কাজ সেইভাবে এগোচ্ছে না এবং প্রকল্পে ব্যাপক নিরাপত্তা ঝুঁকি বিদ্যমান রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন উত্তরা ১৮ নম্বর সেক্টর রাজউক উত্তরা এপার্টমেন্ট মালিক কল্যাণ সমিতি।

শনিবার (২৭ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে তারা এসব অভিযোগ করেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ঢাকা শহরে যাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই তাদের কথা বিবেচনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ আবাসন প্রকল্প গ্রহণ করে। কিন্তু বাস্তবে বিভিন্ন অনিয়মের কারণে কাজ সেভাবে এগোচ্ছে না এবং প্রকল্পে ব্যাপক নিরাপত্তা ঝুঁকি বিদ্যমান রয়েছে।

তারা আরো বলেন, বরাদ্দ প্রাপ্তদের সাথে রাজউকের সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ফ্ল্যাট সম্পূর্ণ ব্যবহার উপযোগী করে বুঝিয়ে দেয়ার কথা কিন্তু উক্ত সময়সীমা অতিক্রমের পর প্রায় আড়াই বছর পার হওয়া সত্ত্বেও আজও প্রাপ্তদের বসবাসের উপযোগী করে বুঝিয়ে দেয়া হয়নি। ক্ষতিগ্রস্ত বরাদ্দপ্রাপ্তগনের পক্ষে আমরা বিভিন্ন সময়ে নির্মাণ কাজে অনিয়ম হচ্ছে বলে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করি কিন্তু সেগুলি যথাযথ তদন্ত করে ব্যবস্থা না নিয়ে সিডিউল বহির্ভূত কর্মকাণ্ডে নিম্ন মানের মালামাল ও যন্ত্রপাতির ব্যবহার অব্যাহত রাখা হয়েছে।

তারা অভিযোগ করে বলেন, ওই অ্যাপার্টমেন্টে জেনারেটর সেট এ‌সেম্বল্ড এবং টেস্টড থাকার কথা ছিল ইউএসএ, জাপান, ইউকে, জার্মানির কিন্তু বাস্তবে চাইনিজ এ‌সেম্বল্ড এবং টে‌স্টেড লাগানো হয়েছে যা সিডিউল মোতাবেক থাকা বাঞ্ছনীয়। বিল্ডিংয়ের ফায়ার ফাইটিং এর মোটর ড্রাইভিং ডিজেল ইঞ্জিন লাগানো হয় নাই।

এ সময় তারা দাবি জানিয়ে বলেন, বুয়েটের বিশেষজ্ঞ টিম দিয়ে সিডিউল মোতাবেক কাজের মান যাচাইয়ের পর যারা দায়ী তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সভাপতি মোহাম্মদ হামিদুর রহমান, যুগ্ন  সম্পাদক আবু হেনা মোস্তফা কামাল ও সংগঠনের সদস্য বৃন্দ।

ট্যাগ: bdnewshour24 উত্তরা