banglanewspaper

অনলাইন শপিং সাইট থেকে আইফোন কিনে ঠকেছিলেন ভারতের পাঞ্জাবের এক বাসিন্দা। অনলাইনে মূল্য পরিশোধ করে ফোন অর্ডার করেছিলেন তিনি। কিন্তু আইফোনের বদলে তিনি পেয়েছিলেন পাঁচটি বাসন মাজার সাবান।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, দুই বছর আগে এমন প্রতারণার শিকার হয়েছিলেন পাঞ্জাবের মোহালির বাসিন্দা পারভিন কুমার শর্মা নামে এক ইঞ্জিনিয়ার। ক্ষতিপূরণ পেতে ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরে মামলাও করেন তিনি। এত দিন পর এসে পারভিন কুমার ১ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন। 

সোমবার অনলাইন সংস্থা, কুরিয়ার সার্ভিস সংস্থা ও মোবাইল বিক্রেতাকে এই ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তর।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ৪ মার্চ স্ন্যাপডিল নামক অনলাইন শপে একটি আইফোন ৭ প্লাস অর্ডার করেন পারভিন কুমার। ১২ মার্চের মধ্যে ফোনটি তিনি পেয়ে যাবেন বলে তাকে জানানো হয়।

তবে স্ন্যাপডিলের মাধ্যমে পিয়স ফ্যাশন নামে এক বিক্রেতা আইফোনটি বিক্রি করে। দুই দিন পরেই ব্লু ডার্ট কুরিয়ার সংস্থার মাধ্যমে পারভিনের বাড়িতে ওই ফোন ডেলিভারি দেওয়া হয়।

সকালে ডেলিভারির সময় পারভিন বাড়িতে না থাকায় তার নিরাপত্তারক্ষী ওই প্যাকেটটি গ্রহণ করেন। এদিকে পারভিন অফিস থেকে ফিরে প্যাকেটটি খুলে দেখেন বাক্সে কোনো ফোন নেই। তার বদলে রয়েছে ৫টি বাসন মাজার সাবান।

তিনি স্ন্যাপডিলের হেল্পলাইনে ফোন করে অভিযোগ জানালে ৫ দিন পর  ব্লু ডার্টের দু’জন কর্মী এসে বাক্সটি পরীক্ষা করে নিয়ে যায়। তবে তারা জানায়, এতে ডেলিভারি বয়ের কোনো ভূমিকা নেই, কারণ প্যাকেটটি সিল করা অবস্থাতেই তারা কুরিয়ার করেছিল।

ওই ইঞ্জিনিয়ার স্ন্যাপডিলের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ করে কোনো ধরনের সদুত্তর পাননি। এমনকি অনলাইন শপটিতে তার অ্যাকাউন্টটিও ডিলিট করে দেওয়া হয়। একপর্যায়ে তিনি কয়েকদিন পর মোহালির ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরে অভিযোগ জানান।

দুই বছর পর সেই অভিযোগ প্রমাণিত হয়। তবে স্ন্যাপডিলের চেয়ে এ প্রতারণার সঙ্গে অধিক জড়িত ছিল পিয়স ফ্যাশন ও ব্লু ডার্ট। ফলে এই দুই প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ দেওয়া হয় পারভিনকে ফোনের দাম প্রায় ৮২ হাজার রুপি পরিশোধ করতে।

এর সঙ্গে ২০১৭ সাল থেকে এত দিন যাবৎ সেই অর্থের ওপর ৮ শতাংশ হারে সুদও দিতে হবে। এ ছাড়াও ১০ হাজার রুপি ক্ষতিপূরণ এবং ১০ হাজার রুপি মামলার খরচ হিসেবে দিতে বলা হয়েছে এই তিনটি সংস্থাকে।

ট্যাগ: bdnewshour24 আইফোন