banglanewspaper

অফিসের মিটিংয়ে নিজের অজান্তেই মাঝেমধ্যে ঘুম চলে আসে। দেখা যায়, এ সময় জরুরি কোনো আলোচনা হলে ঘুমের কারণে তাতে মনোযোগ দেওয়া যায় না। তাই এ সমস্যা এড়াতে কিছু টিপস তুলে ধরা হলো।

মিটিংয়ের সঠিক সময় নির্বাচন: দিনের শুরুতে সকালে যেকোনো কাজে মানুষের আগ্রহ, মনোযোগ সবই থাকে ভরপুর। তাই মিটিং সকালে ডাকাই শ্রেয়।

সঠিক স্থান: মিটিংয়ের জন্য স্থানেরও একটি আলাদা মাহাত্ম্য রয়েছে। সচরাচর যে জায়গায় মিটিং হয় না, হঠাৎ তেমন জায়গায় মিটিং ডাকলে মানুষের মধ্যে একটা সতর্ক ভাব কাজ করে।

সঠিক প্রস্তুতি: মিটিংয়ে ঘুমিয়ে না পড়ার জন্য প্রস্তুতিও একটা ব্যাপার বটে। যারা ঘুমিয়ে পড়ার মতো অবকাশ পেতে পারে তাদের না ডাকাই শ্রেয়।

মিটিংয়ে হালকা নাশতা: মিটিংয়ে হালকা একটু নাশতা দিলে এটি একদিকে কর্মীদের প্রতি কর্তৃপক্ষের মনোযোগ দেওয়ার বহিঃপ্রকাশ। অন্যদিকে এতে, ঘুমও কাটানো সহজ হয়।

মিটিংয়ে সম্পৃক্ততা বোধ করা: কোনো আলোচনায় কেউ যদি সত্যিই সম্পৃক্ত হয়ে যায়, তার জন্য ঘুমিয়ে পড়া মুশকিল। তাই মিটিংয়ে কথা বলার মাধ্যমে সবার সক্রিয় অংশগ্রহণের প্রয়োজনীয়তার দিকটিও গুরুত্বপূর্ণ।

হালকা একটু নাড়া-চাড়া: আর কোনো উপায়েই যদি ঘুমকে ঠেকিয়ে রাখা না যায়, তাহলে কোনো উপায়ে অন্তত নিজের হাতগুলোতে ব্যস্ত রাখুন। আর তা করতে না পারলে, অন্তত নিজের গায়ে একটা চিমটি কেটে দিন। তাতেও ঘুম-ঘুম ভাবটা কাটবে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।
 

ট্যাগ: bdnewshour24 মিটিং