banglanewspaper

দুজন দুই অঙ্গনের। একজন পর্দার, অন্যজন মাঠের। দুজনই সেরা তারকা। বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা ও ভারতের ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে সেরা যুগল বললে অত্যুক্তি হবে না। শুধু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেই নয়, যেকোনো আলাপে একে অপরের প্রশংসায় মেতে ওঠেন এ দম্পতি। ভালোবাসা প্রকাশে কার্পণ্য করেন না।

বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি। তাঁর ব্যাটিং দক্ষতার প্রশংসায় পঞ্চমুখ বিশ্ব। কিন্তু একটা কারণে প্রায়ই সমালোচনার মুখে পড়েন। মাঠে চরম আগ্রাসী কোহলি। প্রায়ই বিপক্ষ দলের খেলোয়াড়, এমনকি আম্পায়ারের সঙ্গেও বিতণ্ডায় জড়ান। কিন্তু বরাবরের মতোই প্রশংসামুখর ‘পিকে’ তারকা আনুশকা শর্মা। স্ত্রীর দাবি, মাঠে আগ্রাসী হলেও অন্য সময়ে একেবারেই ‘শান্ত’ কোহলি।

ভারতের বিনোদন সংবাদমাধ্যম ফিল্মফেয়ারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আনুশকা শর্মা বললেন, “আমার দেখা অন্যতম শান্ত মানুষ সে (কোহলি)। মাঠের বাইরে একদম ধীরস্থির। আপনারা আমার বন্ধুবান্ধব ও সহকর্মীদেরই না হয় জিজ্ঞেস করে দেখুন। মাঠে ও অমন করে, কারণ খেলার প্রতি ওর তীব্র ভালোবাসা। বাস্তব জীবনে ও আগ্রাসী নয়। ওটা শুধুই মাঠের। আমার জানামতে সবচেয়ে শান্ত মানুষ ও। ওর দিকে তাকালেই মনে হয়, ‘ওয়াও! তুমি এত আমুদে!’”

গত বছর আনুশকা শর্মার সর্বশেষ চলচ্চিত্র ‘জিরো’ বক্স অফিসে সুপারফ্লপ হয়েছিল। এর পর আর কোনো সিনেমায় তাঁকে দেখা যায়। কোনো কোনো প্রকল্পের নামও ঘোষণা করেননি। ‘জিরো’র নায়ক সুপারস্টার শাহরুখ খানও বলছেন, একটা বিরতি দরকার। কবে চলচ্চিত্রে ফিরবেন আনুশকা?

এই অভিনেত্রী জানালেন, সচেতনভাবেই বিরতির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ‘জিরো’র পর কয়েক মাস যুগলজীবন কাটাতে চাইছেন। আর বিয়ের পর কাজে এত ব্যস্ত ছিলেন যে মন দিয়ে সংসার করার ফুরসতই মেলেনি। একটার পর একটা ছবিতে কাজ করে যেতে হয়েছে। ওই ফাঁকে বিরাট কোহলির সঙ্গে সামান্য ভ্রমণ-সাক্ষাৎ হয়েছে। আনুশকা আরো বলেন, গণমাধ্যমকর্মীরা লাগাতার তাঁকে জিজ্ঞেস করে চলেছেন, ‘কোন ছবিতে চুক্তি করেছ?’ এটা তাঁর কাছে ‘চাপ’ মনে হচ্ছে।

২০১৩ সালে একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করার সময় আনুশকার সঙ্গে কোহলির ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। এরপর বন্ধুত্ব থেকে প্রেম। ২০১৭ সালে সাতপাকে বাঁধা পড়েন তাঁরা। সূত্র : ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস

ট্যাগ: bdnewshour24 কোহলি