banglanewspaper

ঈদুল আজহা উপলক্ষে আগাম টিকিট বিক্রির শেষ দিনেও কমলাপুর রেলস্টেশনে টিকিটপ্রত্যাশীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। তবে গত দুই দিনের তুলনায় আজ ভিড় কিছুটা কম।

গতরাত থেকে অপেক্ষমাণ থাকা টিকিট প্রত্যাশীদের পদচারণায় স্টেশন চত্বরে তিল ধারণের ঠাঁই নেই।

আজ বিক্রি করা হচ্ছে ১১ আগস্টের টিকিট। প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে বাড়ি ফেরার জন্য টিকিট প্রত্যাশীরা রাত থেকেই দীর্ঘসময় লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছেন- কখন আসবে কাঙ্ক্ষিত টিকিট পাওয়া সময়? হাতে পাবেন তার সোনার হরিণ সমতুল্য ঈদের অগ্রিম টিকিট?

সরেজমিনে কমলাপুর রেলস্টেশনে ঘুরে দেখা যায়, রেলস্টেশনে অনেক মানুষ লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিটের জন্য অপেক্ষা করছেন। এসব মানুষের অনেকে আগের দিনের লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট না পেয়ে পরদিনের টিকিটের জন্য দাঁড়ান।

পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেন আরও অনেক মানুষ। সকাল হতে না হতেই মানুষের লাইন কমলাপুর স্টেশন ছেড়ে বাইরে চলে যায়। মানুষের ভিড় এতটাই বেশি যে, তাদের সামলাতে নিরাপত্তা রক্ষায় নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

টিকিট নিতে গতকাল রাত ১০টার দিকে লাইনে দাঁড়িয়েছেন দেলোয়ার হোসেন। টিকিট বিক্রির দুই ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও সকাল ১১টার পর্যন্ত টিকিট পাননি তিনি। তিনি বলেন, পরিবারের সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে ঈদ করার জন্য কষ্ট করে লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। আশা করছি টিকিট পাব।

এদিকে টিকিট কালোবাজারে যাতে বিক্রি না হয় এজন্য সতর্ক অবস্থায় আছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি রয়েছে পর্যাপ্ত সংখ্যক আনসার সদস্যরা।

ট্যাগ: bdnewshour24 কমলাপুর