banglanewspaper

ভারতের জম্মু-কাশ্মীরে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এদিকে গৃহবন্দি থাকা অবস্থায় জম্মু-কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ এবং মেহবুবা মুফতিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার রাত থেকেই গৃহবন্দি ছিলেন তারা। অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রেপ্তার করা হলো তাদের। এছাড়া বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা সাজ্জাত লোনকেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

একটি সূত্র জানিয়েছে, মেহবুবা মুফতিকে শ্রীনগরের বাসভবন থেকে কিছুটা দূরের একটি সরকারি গেস্ট হাউজে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

মেহবুবা মুফতি বিজেপির সঙ্গে জোট করে একসময় জম্মু-কাশ্মীরে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন। কিন্তু গত বছর জুনে সেই জোট ভেঙে যায়। পতন হয় সরকারের। গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে কাশ্মীরে সেনা সংখ্যা বৃদ্ধির উদ্যোগের পর থেকে উপত্যকার রাজ্যনীতিতে সক্রিয় হয়ে উঠেছিলেন পিডিপি নেত্রী। উপত্যকার বিরোধীদলগুলোকে একত্রিত করতে মুল ভুমিকা নেন তিনি।

মেহবুবার উদ্যোগে রোববার ফারুক আবদুল্লাহর শ্রীনগরের বাসভবনে বৈঠকে বসেছিল কাশ্মীরের দলগুলো। দীর্ঘ আলোচনার পরে এদিন রাতে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের প্রস্তাব পাশ করে রাজ্যসভা। এর কিছুক্ষণ পরেই মেহবুবা মুফতি, ওমর আবদুল্লাহ এবং সাজ্জাত লোনের মতো কাশ্মীরি নেতাদের গ্রেপ্তারের খবর আসতে থাকে।

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ, যা কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেয়, তা বিলোপ করার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বলেই এতদিন বিশেষ সুবিধা ভোগ করে আসছিল জম্মু-কাশ্মীর।

ট্যাগ: bdnewshour কাশ্মীর